অগ্নিগর্ভ দিল্লি, বেঙ্গালুরুতে আটক ইতিহাসবিদ রামচন্দ্র গুহ। নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে দেশের সর্বত্রই।  কলকাতায় পথে নামলেন বাংলার সিনেমা জগতের তারকাদের একাংশ। কয়েক হাজার মানুষের সঙ্গে মিছিলে হাঁটলেন অপর্ণা সেন, কৌশিক সেন, ঋদ্ধি সেন, সোহাগ সেন, সুরঙ্গনা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো অভিনেতা-অভিনেত্রীরাও।

বাংলায় এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইন লাগু হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রীর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার থেকে লাগাতার আন্দোলনে নেমেছেন তিনি। এরইমধ্যে আবার বুধবার বিতর্কিত আইনের বিরোধিতায় সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের মেয়ে সানার একটি পোস্ট ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। বুধবার নাগরিকত্ব আইনে প্রতিবাদে বিশিষ্টজন ও পড়ুয়াদের মহামিছিল বেরোল কলকাতার রাজপথে। এদিন দুপুরে মৌলালির রামলালী ময়দান থেকে ধর্মতলার কলকাতা পুরসভার সদর দপ্তর পর্যন্ত মিছিলে পা মেলালেন অপর্ণা সেন, কৌশিক সেন, সোহাগ সেন-এর মতো ব্যক্তিত্বরাও। প্রতিবাদে শামিল হন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়, প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যায়, সত্যজিৎ রায় চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন ইনস্টিটিউট-এর কয়েক হাজার পড়ুয়ারা। মিছিলের একেবারেই সামনে প্ল্যাকার্ড হাঁটতে দেখা গেল অপর্ণা সেনকে। তিনি বলেন, 'বৈচিত্র্যের মধ্যে আমাদের উপমহাদেশের বৈশিষ্ট্য। ধর্মনিরপক্ষতার আদর্শে বাধা পড়েছে সকলে।  যদি সেই সুতোটা ছিঁড়ে যায়, তাহলে দেশের অখণ্ডতা বিপন্ন হবে। সরকারের কাছে সেই বার্তা পৌঁছে দিতেই পথে নেমেছে তিনি।  আর অভিনেতা কৌশিক সেনের বক্তব্য, 'গোটা দেশেই প্রতিবাদ হচ্ছে। অভাবে নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলতে হবে।'

উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগে নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে দক্ষিণ দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর। ক্যাম্পাসের ঢুকে বিক্ষোভরত পড়ুয়াদের উপর চড়াও হয় পুলিশ। নির্বিচারে চলে লাঠিচার্জ, ফাটানো হয় কাঁদানে গ্যাসে শেলও।  আটক করা হয় বেশ কয়েকজন পড়ুয়াকেও।  বৃহস্পতিবার কলকাতা মহামিছিল থেকে সেই ঘটনারও তীব্র নিন্দা করে  সকলেই।