রাজ্য়ে করোনা চিকিৎসায় দেরি হওয়ার জন্য় এবার নাইসেড-এর নামে অভিযোগ করল স্বাস্থ্য় দফতর। একটি টুইটে দফতর জানিয়েছে, নাইসেড-এর দেওয়া কিট-এ সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে রাজ্য়কে।  যে টেস্ট কিট নাইসেড সরবরাহ করেছে, তা ত্রুটিপূর্ণ। বহু ক্ষেত্রেই লালারসের ফল অমীমাংসিত আসছে। ফলে নতুন করে রোগীর নমুনা পরীক্ষা করতে হচ্ছে তাদের।  যার ফলে চিকিৎসা পদ্ধতিতে দেরি হচ্ছে। অমীমাংসিত ফল আসায় রোগীর করোনা হয়েছে কিনা জানতে রিপিট টেস্ট করতে হচ্ছে। যে কারণে টেস্ট রিপোর্ট পেতে দেরি হচ্ছে সবার।

স্বাস্থ্য দফতরের দাবি, অবিলম্বে আইসিএমআর-কে এই ব্যাপারটি নিষ্পত্তি করতে হবে। তবে শুধু পশ্চিমবঙ্গেই নয় দেশের অন্য ল্যাবগুলিও এই সমস্যায় ভুগছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য় দফতর। রবিবার সন্ধ্যায় এ ব্যাপারে দীর্ঘ টুইট করে স্বাস্থ্য দফতর। তাতে বলা হয়, গোড়ার দিকে পুনের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজি থেকে সরাসরি যে টেস্ট কিট পাঠানো হচ্ছিল তাতে কোনও সমস্যা ছিল না। যদিও বর্তমানে কলকাতার আইসিএমআর-নাইসেড সরকারি ল্যাবে যে টেস্ট কিট সরবরাহ করছে, তা নিয়েই সমস্য়া তৈরি হয়েছে।

এ বিষয়ে মুখ খুলেছেন কলকাতার নাইসেড ডিরেক্টর শান্তা দত্ত। স্বাস্থ্য দফতরের এই অভিযোগ নিয়ে তিনি বলেন, এ ক্ষেত্রে সমস্যার বিষয়টি আইসিএমআর-ও জানে। গোড়ার দিকে পুণের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব পুণে যে কাজটি করছিল, এখন টেস্ট কিটের চাহিদা বাড়ায় তা তাদের পক্ষে করা সম্ভব হচ্ছে না।