অমিত শাহের ভার্চুয়াল প্রচারের পর এবার রাজ্য়ে ভার্চুয়াল প্রচারে নামছেন কেন্দ্রের পাঁচ মন্ত্রী। ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের লক্ষ্য়ে রাজ্য়ে জোরকদমে প্রচার  শুরু করে দিল  বিজেপি। সোমবার রাজ্য় বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়ে দেন কবে কোথায় বাংলার বুকে হবে এই ভার্চুয়াল প্রচার।  

এদিন দিলীপবাবু জানান, আগামী ২৪ জুন হুগলি জোনে প্রথম ভার্চুয়াল সভা হবে। সেই সভার প্রধান বক্তা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। পরবর্তী ভার্চুয়াল সভা হবে উত্তরবঙ্গে। ২৬ জুন এই র্যালির প্রধান বক্তা থাকবেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান। ২৮ তারিখ কলকাতার ভার্চুয়াল সভায় প্রধান আকর্ষণ কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। পরে রাঢ় বাংলায় যে সভা হবে তাতে উপস্থিত থাকবেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অর্জুন রাম  মেঘওয়াল। বাংলায় ভার্চুয়াল প্রচারে এবার শেষসভায় উপস্থিত থাকবে মন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ। ২ জুলাই নবদ্বীপ জোনে রয়েছে এই প্রচারপর্ব।

তবে এই বলেই থেমে থাকেননি বিজেপির রাজ্য় সভাপতি। তিনি আরও জানান,এদিন নিজেই মুখ্যমন্ত্রী অফিস থেকে তাকে ২৪ জুন দুপুর তিনটের সময় সর্বদল বৈঠকে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানান। তবে এটা যে রাজনীতির জায়গা  নয়, তা স্পষ্ট করে দিয়েছেন দিলীপবাবু। তিনি বলেন, রাজ্য়ে করোনা মোকাবিলায় কী কী প্রয়োজন সে বিষয়ে রাজ্য সরকারকে পরামর্শ দেবে বিজেপি। এই বলেই অবশ্য থেমে থাকেননি মেদিনীপুরের সাংসদ।

দিলীপ ঘোষ বলেন,আমফানে কেবল তৃণমূলের নেতা মন্ত্রীদের আত্মীয় স্বজনদের হাতে ক্ষতিপূরণের টাকা পৌছচ্ছে। কাদের টাকা পাওয়া উচিত তা নিয়ে কোনও সমীক্ষাই করেনি রাজ্য় সরকার। বিজেপির কাছে ১৪২ জনের তালিকা আছে। যারা নামখানা ছাড়াও ওই সব অঞ্চলের বাসিন্দা। ক্ষতিগ্রস্তরা টাকা পাচ্ছেন না ,এদিকে পাকা বাড়ির লোকজন টাকা পেয়ে যাচ্ছেন।