আমডাঙার বিজেপি কর্মী খুনের ঘটনায় মুখ খুললেন অর্জুন সিংহ। তার অভিযোগ হত্যার রাজনীতি করছে তৃণমূল।
গত কাল সন্ধ্যায় বিজিপি কর্মী নাজিবুর করিম ওরফে আকবার বসিছগাছি পুরাতন বাজারে ওষুধ কিনতে গেলে শাসক দলের কর্মী রাকেশ পিয়াদা চেলাকাট দিয়ে মারধর করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বারাসাত জেলা হাসপাতাল তার পর আরজিকর হাসপাতালে মৃত্যু হয়।এর পরেই রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে আমডাঙ্গা। পুলিশের গাড়ি এলে ভাঙচুরও করা হয়।

এদিন এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দেন অর্জুন সিংহ। বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহ বলেন, খুনের নেপথ্যে রয়েছে তৃণমূল। তাঁর বক্তব্য, পায়ের তলার জমি সরে যাওয়ার কারণে অশান্তি করাচ্ছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  এফ আই আর না নেওয়ার বিষয়টিও তুলে আনেন সাংসদ অর্জুন সিংহ।  এর পরেই তাঁর বিষোদগার, 'বাংলায় আরেকটা নন্দীগ্রাম হবে। তেমনটাই চাইছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

 রাজ্যপালের সঙ্গে কথা বলবেন বলেও জানান অর্জুন সিংহ। তিনি আগামীকাল রাজ্যপালকে রিপোর্ট দেবেন। প্রসঙ্গত লোকসভা ভোটের সময় থেকে বাংলায় শুরু হওয়া অশান্তি থামার নাম নেই। ভাচপাড়া, সন্দেশখালির সঙ্গে এবার জুড়েছে আমডাঙা। শাসকের বিরুদ্ধে ক্ষোভ তৈরি হয়েছে এলাকাবাসীরও। 

সূত্রের খবর, এই বিজেপি কর্মী আগে সিপিএম করতেন। লোকসভা ভোটের মুখে তিনি বিজেপিতে যোগ দেন। তারপরেই তৈরি হয় তাঁর প্রতি প্রবল আক্রোশ। সেই আক্রোশের জেরেই এই রাজনৈতিক খুন, এমনটাই দাবি স্থানীয় মানুষের। যদিও পুলিশ তা মানতে নারাজ, পুলিশের দাবি বচসার জেরে এই খুন হয়েছে। কিন্তু বচসার জেরে ৃকাঠ দিয়ে পিটিয়ে খুন! আর কত হিংসা দেখবে বাংলা!