পুলিশ অনুমতি দেয়নি। আদালতের নির্দেশ মেনে কুমারগঞ্জ গণধর্ষণকাণ্ডের প্রতিবাদে শুক্রবার শহরে মিছিল করল বিজেপি। নন্দন চত্বরে মিছিলে হাঁটলেন সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়, অগ্নিমিত্রা পাল, রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ দলের প্রথমসারির নেতারা। 

দক্ষিণ দিনাজপুরে কুমারগঞ্জে কিশোরীকে ধর্ষণ করে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠেছে প্রেমিক ও তার বন্ধুদের বিরুদ্ধে। সেই ঘটনার প্রতিবাদে শুক্রবার নন্দন থেকে হাজরা পর্যন্ত মিছিল করতে চেয়েছিল বিজেপি মহিলা ও যুব মোর্চা। পুলিশ অনুমতি দেয়নি, কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় গেরুয়াশিবির। মিছিল শুরু হতে তখন আর বেশি সময় বাকি নেই।  মামলার শুনানি শুরু হয় কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সব্যসাচী ভট্টাচার্যের এজলাসে। শুনানিতে রাজ্যে অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত বলেন, অন্য একটি রাজনৈতিক দলের সমাবেশের কারণে নন্দন থেকে হাজরা পর্যন্ত বিজেপিকে মিছিল করার অনুমতি দেওয়া যাবে না। নন্দন থেকে ধর্মতলা পর্যন্ত মিছিলের অনুমতি চান মামলাকারীর আইনজীবী। কিন্তু সেই পথেও মিছিলের অনুমতি দিতে রাজি ছিল না রাজ্য সরকার। তাহলে কি মিছিল হবে না? বিকল্প পথের সন্ধান দেন রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্তই। আর আপত্তি করেনি বিজেপিও।   

আরও পড়ুন: রেষারেষির বলি যুবক, বাসে আগুন, রণক্ষেত্র মোমিনপুর, দেখুন ভিডিও

দুই পক্ষের সহমতের ভিত্তিতে বিজেপিকে নন্দন থেকে এক্সাইড মোড় হয়ে সেন্ট পলস ক্যাথিড্রাল, তারপর বিড়লা প্ল্যানেটোরিয়াম হয়ে ফের নন্দনেই মিছিল শেষ করার নির্দেশ দেয় কলকাতা হাইকোর্ট।  শুক্রবার বিকেল সেই পথেই মিছিল করল গেরুয়াশিবির। এর আগে বেআইনি জমায়েতের অভিযোগে বিজেপি কর্মীদের গ্রেফতারের ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ায় নন্দন চত্বরে।