বউবাজার এলাকার বাসিন্দাদের জন্য় এবার একটি আপৎকালীন ফোন নাম্বার চালু করতে চলেছে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো কর্তৃপক্ষ। ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো-র তরফে এক আধিকারিক জানিয়েছেন, শনিবার এবং রবিবারের মধ্য়েই এই নম্বরটি চালু হবে। তিনি বলেছেন, এই নম্বরে ফোন এলে, বউবাজারে  তাদের অস্থায়ী অফিসে অফিসাররা ফোন ধরবেন। সেখান থেকে দ্রুত জানিয়ে দেওয়া হবে পদস্থ আধিকারিকদের, যাতে প্রয়োজন মত ব্যবস্থা নেওয়া যায়। শিয়ালদা ও এসপ্ল্যানেড দিক বরাবর সুড়ঙ্গ খোঁড়া শেষ না হওয়া পর্যন্ত এই নম্বরটি চালু থাকবে।  

আরও পড়ুন, ঋণ দেওয়ার নামে লক্ষাধিক টাকার প্রতারণা, গ্রেফতার ১


সূত্রের খবর, শিয়ালদামুখী সুড়ঙ্গ খোঁড়া শুরু করার পর চৈতন সেন লেনে কয়েকটি বাড়িতে ফাটল ধরা পড়ে, খসে পড়ে চাঙড়। বৃহস্পতিবার এবং শুক্রবার ঘটনাস্থলে যান ইস্ট-ওয়েস্ট আধিকারিকরা। ফাটল মেরামতের কাজ শুরু হয়। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য়, গত বছরের ৩১ অগস্ট বউবাজারে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর সুড়ঙ্গ খোঁড়ার কাজ চলাকালীন আচমকাই ঘটে যায়  বিপর্যয়। সুড়ঙ্গে বালি এবং জল ঢুকে যাওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হয় এলাকার অনেক বাড়ির ভিত। সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়েছিলেন সেকরাপাড়া লেন এবং দুর্গা পিতুরি লেনের বাসিন্দারা।  তারপরেই সেখানকার বাসিন্দাদের সরিয়ে আনা হয় এবং বন্ধ হয়ে যায়  মেট্রোর সুড়ঙ্গ খোঁড়ার কাজ। এদিকে গত সপ্তাহ থেকে কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে ফের শুরু হয়েছে সুড়ঙ্গ কাটার কাজ। আর তারপরেই ফের আতঙ্ক দেখা দিয়েছে বৌবাজারের বাসিন্দাদের একাংশের মধ্যে। 

আরও পড়ুন, পুজো দেওয়া হল না কালীঘাটে, বেপরোয়া গাড়ির বলি দর্শনার্থী

সূত্রের খবর, যেহেতু পুনরায় মেট্রোর কাজ শুরু হতেই বাড়িতে ফাটল ধরা পড়েছিল। সেজন্য় এখন নতুন করে আবার ফাটল ধরল কিনা ,সেজন্য় বসানো হয়েছে ক্র্য়াক মিটার। কেএমআরসিএল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, গত বছরের বিপর্যয় থেকে শিক্ষা নিয়ে তাঁরা সমস্ত রকম প্রস্তুতি ও সাবধানতা নিয়ে কাজ করছে। তবে ফাটল ধরার কারণ জানার জন্য় সবরকম পরীক্ষা চলছে। 

আরও পড়ুন, প্রতারণা মামলায় আপাতত স্বস্তি, গ্রেফতার করা যাবে না মণিরুল ইসলামকে