ঋণ দেওয়ার নামে প্রতারণা। শহরে জোড়া জোড়ায়  ভুয়ো কোম্পানির শিকার গ্রাহকরা। ঋণ নিতে গিয়ে উল্টে লক্ষাধিক টাকা খোয়ালেন গ্রাহকরা। ইতিমধ্য়েই ওই দুই  ভুয়ো কোম্পানির অধিকর্তা অরুপ মান্নাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনায় তদন্তে নেমছে বিধাননগর সাইবার ক্রাইম শাখা।

আরও পড়ুন, কলকাতার আকাশ পরিষ্কার থাকবে, হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গে

সূত্রের খবর, সল্টলেকের আরবিসিএম সার্ভিস লিমিটেড এবং এভিএম গ্লোবাল সার্ভিসেস নামের ওই দুই  ভুয়ো কোম্পানি ১০ লাখ টাকার লোন দেওয়ার প্রস্তাব দেখিয়ে গ্রাহকদের থেকে প্রায় ছয় লক্ষ টাকার প্রতারণা করে বলে অভিযোগ। হাওড়ার বাসিন্দা প্রসেনজিত হাজরা এই অভিযোগ দায়ের করেন। এরপরই পুলিশ নড়েচড়ে বসে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে শেষ অবধি ওই দুই কোম্পানির খোঁজ করতে গিয়ে দেখে দুটি কোম্পানিই ইতিমধ্য়েই বন্ধ হয়ে গেছে। খোঁজ নিয়ে দেখতে গিয়ে বেরিয়ে অধিকর্তা অরুপ মান্নার নাম। তারপরই পুলিশ তাঁকে গ্রেফতার করে। এরপরেই বেরিয়ে আসে একাধিক প্রতারণার ঘটনা। দুটি কোম্পানিই সুযোগ বুঝে গ্রাহকদের বিমাগুলিকে বন্ধ করে দিয়েছে।

আরও পড়ুন, ফের জেলেই রোজভ্যালির কর্ণধার, গৌতম কুন্ডুর জামিনের আবেদন খারিজ

পুলিশি সূত্রে খবর, এই মুহূর্তে ধৃত অরুপ মান্নাকে পুলিশ দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করছে। এই ঘটনা প্রকাশ্য়ে আসার পরই অসংখ্য় ভুক্তভুগী গ্রাহকদের কথা সামনে এসেছে। অভিযুক্ত ওই ব্য়াক্তিকে কোর্টে তোলা হবে। ইতিমধ্য়েই এই ঘটনায় আরও কারা যুক্ত আছে তাদের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ। 
 

আরও পড়ুন, প্রতারণা মামলায় আপাতত স্বস্তি, গ্রেফতার করা যাবে না মণিরুল ইসলামকে