পুরোপুরি বন্ধ না করে ঘুরপথে বাস চালু রাখারই সিদ্ধান্ত নিলেন বাস মালিকরা। ফলে টালা সেতু বন্ধের পর যে হয়রানির মুখে পড়েছিলেন নিত্যযাত্রীরা, তা কিছুটা কমার সম্ভাবনা দেখা দিল। মোট তেরোটি রুটের বাস এবং মিনিবাসকে হয় ঘুরপথে নয় রুট সংক্ষিপ্ত করে চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মালিকরাষ 

পুজোর আগেই টালা সেতুর রুগ্ন অবস্থা ধরা পড়ে। সেতু দিয়ে ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয় রাজ্য সরকার। বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে ঘুরপথে ওই পথ দিয়ে যাতায়াতকারী বাসগুলিকে চালানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু সরকারের ঠিক করে দেওয়া রুটে বাস চালাতে গিয়ে বিপুল আর্থিক ক্ষতির অভিযোগ করেন বাস মালিকরা। এর ফলে টালা সেতু দিয়ে যাতায়াতকারী অধিকাংশ রুটের বাস এবং মিনিবাস চালানোই বন্ধ করে দিয়েছিল মালিকপক্ষ। ফলে চরম ভোগান্তিতে পড়েন নিত্যযাত্রীরা। 

এই অবস্থায় সমস্যা সমাধানে ফের রাজ্য সরকার এবং পুলিশের সঙ্গে আলোচনা শুরু হয় বাস মালিকদের। এর পরে সোমবার সন্ধ্যায় কলকাতা বাস, মিনিবাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সম্পাদক প্রদীপনারায়ণ বোস জানান, ওই বাস রুটগুলিতে বেশ কিছু অদলবদল করে তা চালু রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

বাস মালিকদের তরফে জানানো হয়েছে দক্ষিণশ্বর থেকে মহিষবাথানের মধ্যে চলাচলকারী ৩২এ বাসটি এখন থেকে চিড়িয়ামোড় থেকে দমদম রোড হয়ে নাগেরবাজার, লেকটাউন, উল্টোডাঙ্গা হয়ে মহিষবাথান যাবে। কল্যাণী রোড থেকে সেক্টর ফাইভের মধ্যে চলাচলকারী ২০১ বাসটি চিড়িয়া মোড় থেকে পাইকপাড়া, মিল্ক কলোনি, আর জি কর রোড,শ্যামবাজার, রাজাবাজার, ফুলবাগান, হাডকো মোড় হয়ে সেক্টর ফাইভ পৌঁছবে।

নাগেরবাজার থেকে সায়েন্স সিটি পর্যন্ত চলাচলকারী ২০২ বাসটি লেক টাউন, উল্টোডাঙ্গা এবং খান্না মোড় হয়ে পুরানো রুট ধরেই সায়েন্স সিটি যাবে। ২২২ রুটের বাসটি বনহুগলির পরিবর্তে গালিব স্ট্রিট থেকে বেহালা চৌরাস্তা পর্যন্ত চলাচল করবে।

ব্যারাকপুর এবং বড় বটতলা থেকে ছেড়ে আসা ৭৮ এবং ২১৪ রুট দু'টিকে পাইকপাড়া পর্যন্ত সংক্ষিপ্ত করা হচ্ছে। তবে ৭৮/১ রুটের বাসটি রহড়া বাজার থেকে চিড়িয়া মোড়, পাইকপাড়া, মিল্ক কলোনি,শ্যামবাজার হয়ে পুরানো রুট ধরে ধর্মতলা যাবে। একই ভাবে ২১৪এ রুটের বাসটি শুকচর গির্জা থেকে চিড়িয়া মোড় এসে দমদম রোড ধরে যশোহর রোড, আরজি কর রোজ, শ্যামবাজার হয়ে পুরনো রুটেই চেতলা পার্ক যাবে। ফেরার পথে বেলগাছিয়া, পাইকপাড়া. চিড়িয়ামোড় হয়ে ফিরবে বাসটি। 

৩৪বি রুটের বাসটি নোয়াপাড়া থেকে ছেড়ে চিড়িয়ামোড়, নাগেরবাজার, লেকটাউন, হাডকো মোড়, ফুলবাগান, রাজাবাজার হয়ে ধর্মতলা যাবে। আর ৩৪সি নোয়াপাড়া থেকে চিড়িয়ামোড়, নাগেরবাজার, লেকটাউন, উল্টোডাঙ্গা স্টেশন হয়ে খান্না মোড় হয়ে পুরনো রুট ধরে ধর্মতলা পৌঁছবে। 

গত কয়েকদিন ধরে এই রুটের অধিকাংশ বাসই চলছিল না। ফলে বেজায় সমস্যায় পড়েছিলেন নিত্যযাত্রীরা। মঙ্গলবার থেকেই পুরোদমে বাস চালু করার আশ্বাস দিয়েছে মালিকপক্ষ। ফলে সময় বেশি লাগলেও ঘুরপথে অন্তত গন্তব্যে পৌঁছতে পারবেন যাত্রীরা।