কোভিড মহামারির প্রেক্ষিতে বিদ্যালয়ের বেতন সংক্রান্ত বিষয়ে বড় সিদ্ধান্ত নিল ক্যালকাটা হাইকোর্ট। সম্প্রতি তারা জানিয়েছে, মহামারির জন্য যে সময়টা স্কুলগুলি বন্ধ ছিল, সেই সময়ের বেতন প্রাক-মহামারির সময়ের বেতনের ৮০ শতাংশ নিতে হবে। আদালত আরও বলেছে, যে ইনস্টিটিউটগুলির বন্ধের সময়কালে তাদের লাভ ৫ শতাংশের মধ্যেই সীমিত করা উচিত। ২০১৯ সালেরএপ্রিল মাসের আগে পর্যন্ত ভারতের অবস্থা মোটামুটি স্বাভাবিক থাকায় এপ্রিলের াগেস সময়কে কোভিড পূর্ববর্তী হিসাবে ধরা হয়ছে।

কলকাতা উচ্চ আদালতের বিচারকরা আরও বলেছেন, মহামারির কারণে শিক্ষার্থীদের বাবা-মায়েরা সময়ে বেতন দিতে না পারলে ওই শিক্ষার্থীদের স্কুল থেকে বের দেওয়া যাবে না। কোনও  শিক্ষকেরও চাকরি কেড়ে নেওয়া যাবে না। এর আগে গত ২০ জুলাই স্কুলগুলিকে বেতন কমানো নিয়ে কিছু নির্দেশিকা অনুসরণ করতে বলেছিল আদালত। তাতে বলা হয়েছিল যেসব পরিষেবাগুলি সরবরাহই করা হয়নি, তার জন্য অর্থ নেওয়া যাবে না।

আদালত আরও বলে, কোভিড মহামারির সময়ে বন্ধ থাকায় অনেক সাশ্রয় করেছে স্কুল গুলি। সেই সাশ্রয়ের লাভ ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে বন্টন করতে হবে। প্রত্যেকটি স্কুলকে আদালতের নির্দেশ মানতেই হবে। অন্যথায় যাতে আদালতের নির্দেশ লঙ্ঘনের মামলা করা যায়, এই বিষয়ে সেইরকম একটি নির্দেশিকা তৈরি করার চেষ্টা করছে আদালত।