রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের মতোই সরস্বতী পুজো উপলক্ষে কলকাতা হাইকোর্টের কর্মীরাও পরপর পাঁচদিন ছুটি পাচ্ছেন৷ সরস্বতী পুজো উপলক্ষে বুধ ও বৃহস্পতিবার ছুটি হাইকোর্টে। কিন্তু বার অ্যাসোসিয়েশনের তরফে প্রধান বিচারপতি টিবি রাধাকৃষ্ণনের কাছে আবেদন জানানো হয় শুক্রবারও ছুটি দেওয়ার জন্য। প্রধান বিচারপতি তা মঞ্জুর করেন। 

শুধুমাত্র হাইকোর্ট নয়, রাজ্যের সমস্ত নিম্ন আদালত এবং আন্দামানের নিম্ন আদালতেও ছুটি থাকছে৷ শুক্রবারও ছুটি থাকায় রবিবার পর্যন্ত টানা ৫ দিন ছুটি পেয়ে আইনজীবী এবং আদালতের কর্মচারীরাও খুশি। সারা বছরে কোন কোন দিন ছুটি থাকবে তা নিয়ে হাইকোর্টের নিজস্ব ক্যালেন্ডার রয়েছে। ছুটির সেই তালিকার বাইরে কর্মচারীরা অন্য কোনও ছুটি পান না। কিন্তু এ বছর বার অ্যাসোসিয়েশনের তরফে শুক্রবার ছুটি চাওয়া হয় সরস্বতী পুজো উপলক্ষে।  

এদিকে ,সরস্বতী পুজো উপলক্ষে একটানা লম্বা ছুটি পাচ্ছে রাজ্য় সরকারি কর্মীরা। এমনই ঘোষণা করেছে মমতার সরকার।  স্বাভাবিকভাবেই এই ছুটি রাজ্য় সরকারি কর্মীদের জন্য  একটা বড় সুখবর ৷ নতুন বছর শুরু হতেই লম্বা ছুটি উপভোগের সুযোগ পেয়ে গেল তাঁরা। 

বছরের প্রথম মাসেই ছুটির জোয়ার ৷ সরস্বতী পুজোয় অতিরিক্ত ছুটির ঘোষণা রাজ্য সরকারের ৷ ২৯ তারিখ অর্থাৎ বুধবার অতিরিক্ত সরকারি ছুটি হিসেবে ঘোষিত হয়েছে ৷ এর ফলে টানা পাঁচ দিনের সরকারি ছুটি উপভোগ করতে চলেছেন সরকারি কর্মীরা ৷ ছুটির তালিকা অনুসারে বৃহস্পতি ও শুক্রবার সরস্বতী পুজোর ছুটির পর শনি এবং রবিবার বন্ধ থাকবে সরকারি অফিস ৷ অর্থাৎ বুধবার থেকে রবিবার টানা পাঁচদিনের লম্বা ছুটি কাটাতে চলেছে রাজ্য সরকারি অফিসের কর্মচারীরা ৷ 

তবে এই প্রথমবার নয় এর আগেও অতীতে এমনই ছুটির সুখবর পেয়েছে রাজ্য় সরকারি কর্মীরা। গত বছরই ছট পুজোয় বিহারে ২ দিন সরকারি ছুটি ছিল। কিন্তু রাজ্য়ে তিনদিন সরকারি ছুটি পেয়ে যায় রাজ্য় সরকারি কর্মীরা। তা নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। বিরোধীরা বলতে থাকেন, বিহারে বিহারিরা ২ দিন ছুটি পেলেও এখানে আরও দরাজ হয়েছেন মুখ্য়মন্ত্রী।