শনিবারই রাজীব  কুমারের আগাম জামিনের আবেদন খারিজ করে দিয়েছিল আলিপুর আদালত। ফলে রবিবার সকাল থেকে রাজীবের কুমারের খোঁজ পেতে আরও জোরদার তল্লাশি শুরু করল সিবিআই। বিভিন্ন জায়গায় হানা দেওয়ার পাশাপাশি এ দিন সিজিও কমপ্লেক্সে সিবিআই দফতরে রাজীব ঘনিষ্ঠ বেশ কয়েকজনকে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছেন সিবিআই গোয়েন্দারা। 

এ দিন সকালেই রাজীব কুমারের সন্ধানে সিবিআই গোয়েন্দাদের বেশ কয়েকটি দল অভিযানে বেরোয়। তাদের মধ্যেই একটি দল হানা দেয় লেকটাউন এলাকায়। সেখানে একটি রেস্তোরাঁয় প্রথমে ঢোকেন সিবিআই আধিকারিকরা। এর পরে পাশেই একটি গেস্ট হাউজে হানা দেন সিবিআই আধিকারিকরা। ওই গেস্ট হাউজের কর্মীদের সঙ্গে কথা বলার পর সেখান থেকে বেরিয়ে যান তাঁরা। এডিজি সিআইডি রাজীব কুমারের খোঁজে  সিবিআই- এর একটি দল পার্ক স্ট্রিটে তাঁর কলকাতার সরকারি আবাসনেও হানা দেয়। পাশাপাশি উত্তর চব্বিশ পরগণা এবং কলকাতার আরও কয়েকটি জায়গাতেও হানা দেয় সিবিআই।

আরও পড়ুন- আরও চাপে রাজীব কুমার, আগাম জামিনের আবেদন খারিজ

এ দিকে রাজীবের খোঁজ পেতে তাঁর পরিচিত এবং ঘনিষ্ঠদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে সিবিআই। সিজিও কমপ্লেক্সে রাজীব কুমারের ট্রাভেল এজেন্ট- সহ বেশ কয়েকজনকে ডেকে রাজীবের হদিশ পাওয়ার চেষ্টা করেন সিবিআই গোয়েন্দারা। রাজীবের খোঁজে গত কয়েকদিন ধরেই দক্ষিণ চব্বিশ পরগণা-সহ বিভিন্ন প্রান্তে তল্লাশি চালিয়েছে সিবিআই। রিসর্ট থেকে শুরু করে হাসপাতাল, বাদ যায়নি কিছুই। যদিও রাজীব কুমার এখনও অধরা। সূত্রের খবর, আলিপুর আদালতে আগাম জামিনের আবেদন খারিজ হয়ে যাওয়ার পরে কলকাতা হাইকোর্টে নতুন করে আগাম জামিনের আবেদন করতে পারেন রাজীব কুমার।