রাজ্যের ছাত্রছাত্রীর‌দের মূল্যবোধের বিকাশ চান মুখ্যমন্ত্রী। সেই কারণেই স্কুলের সিলেবাসে পাঠ্য বিষয়গুলির সঙ্গে মূল্যবোধের মত বিষয়কেও অন্তর্ভুক্ত করতে চাইছেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। এদিন বেলতলা গার্লস হাইস্কুলের একটি অনুষ্ঠানে এসে এমনই জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বেলতলা গার্লস হাইস্কুলের এই অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকেই, এদিন স্কুলটির উন্নয়ন কল্পে বেলতলা স্কুলকে বিল্ডিং বানানোর জন্যে ১ কোটি ২৫ লক্ষ টাকা দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি আরও প্রস্তাব দেন, বেলতলা স্কুল একটা কলেজ তৈরি করতে চাইলে করতে পারে। সরকার সাহায্য করবে যাতে এই মেয়েরা নিজেরাই নিজেদের জায়গাতেই উচ্চশিক্ষাও পড়তে পারে। মুখ্যমন্ত্রী এদিন পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষাকাঠামোর হাল সবিস্তারে বলেন। তাঁর মতে, ৪৬ টা নতুন কলেজ হয়েছে। ২৮ টা নতুন বিশ্ববিদ্যালয় হয়েছে। ৩০ টা মেডিক্য়াল কলেজ হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ মমতার নয়া ব্যাখ্যা- 'হেডলেস প্রন, লেগলেস চিকেন'
কর্ণাটক সংকটে বিজেপি-কে দুষলেন মমতা, ক্রমেই আশা কমছে কংগ্রেসের

মুখ্যমন্ত্রী এদিন চেনা সুরে ছাত্রছাত্রীদের দেশ ছাড়তে না করেন। 'আমরা চাই আমাদের ছেলেমেয়েরা ঘরে পড়াশোনা করুক। আমরা বাইরে যাই, আমাদের ঘরের কাছে অনেক কিছু আছে, তাও অনেক। সেটাকে যত্ন করে তুলে নিতে হবে।'

এই সময়েই নতুন এই বিষয়ের কথা তোলেন মমতা। তাঁর দাবি, 'কম্পিউটার ক্লাস, স্মার্টক্লাস থাকুক, মূল্যবোধ, মানবিকতার ক্লাস আলাদা করে হওয়া উচিত। হিংসা আর নেগেটিভ চিন্তা দূর করতে হবে মন থেকে।' এদিন কলকাতার ছাত্রছাত্রীদের জন্যেও একটি বড় ঘোষণা দেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর কথায়, মিড ডি মিলে থালা, বাটি, গ্লাস, জুতো, বই দেওয়া হয়। গ্রামের দিক সবুজসাথী সাইকেল দেওয়া হয়। কলকাতায় আমি সবুজসাথীর বিকল্প তৈরি করব। দার্জিলিং-এ আমি রেনকোট-ব্যাগ দিয়েছিলাম।' ছাত্রছাত্রীদের বাংলা শেখারও অনুরোধ করেন তিনি। তাঁর মতে, বাংলাটাকে ভাল বেসে অন্য কাজে এগোতে হবে।