নতুন বছরে সৌজন্যের বার্তা।  মুখ্যমন্ত্রীর কাছ থেকে ফুল ও মিষ্টি উপহার পেলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। মুখ্যমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা বার্তা পাঠালেন রাজ্যপালও।

যেদিন থেকে রাজ্যপালের কুর্সিতে বসেছেন, সেদিন থেকেই বিভিন্ন ইস্যুতে সরকারের সঙ্গে সংঘাতে জড়িয়েছেন জগদীপ ধনখড়। বরফ গলার ইঙ্গিত মিলল বছরের শেষে। রাজ্যের শিক্ষাক্ষেত্রের পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনায় বসতে চেয়ে ২৫ ডিসেম্বর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি দেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জবাব আসে রাজভবনে। চিঠি লিখে মুখ্যমন্ত্রী জানান, রাজ্যপালের চিঠি তিনি সংশ্লিষ্ট দপ্তরের মন্ত্রীকে পাঠিয়ে দেবেন। সুবিধা মতো রাজ্যপালের সঙ্গে কথা বলে নেবেন শিক্ষামন্ত্রী। মঙ্গলবার রাজভবনে গিয়ে রাজ্যপালের সঙ্গে দেখাও করেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। বৈঠকের পর রাজ্যপাল টুইট করেন, 'মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশের বৈঠক হয়েছে।' সূত্রের খবর,  শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর রাজ্যপালকে  নতুন বছরের শুভেচ্ছা জানিয়ে ফুল ও মিষ্টি পাঠান মুখ্যমন্ত্রী। 

 

তাহলে কি নতুন বছরে রাজ্যপালের সঙ্গে আর সংঘাতে ইতি টানতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী? তেমনটাই মত রাজনৈতিক মহলের।  বস্তুত, তাঁর নির্দেশেই মঙ্গলবার, বছরের শেষদিনে রাজভবনে যান শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলে জানা গিয়েছে। নবান্নে ইতিবাচক বার্তায় রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় কীভাবে সাড়া দেন, সেটাই এখন দেখার।