কেন্দ্রীয় দল বাঙ্গুর হাসপাতালে যাওয়ার সময়েই ঘটে গেল অঘটন। হাসপাতাল থেকে পালানোর অভিযোগ উঠল একজন করোনা রোগীর বিরুদ্ধে। খবর পৌঁছতেই তাকে হাসপাতালে ঢোকালো স্বাস্থ্য়কর্মীরা। স্প্রে করে সংক্রমণমুক্ত করা  হল রাস্তা। ঘটনা প্রকাশ্য়ে আসতেই শোরগোল পড়ে যায় হাসপাতালে।

সূত্রের খবর,বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার সময় কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল এম আর বাঙ্গুর হাসপাতালে পৌঁছন। তাঁরা হাসপাতালে  ঢোকার মুখেই এক ব্যক্তিকে ছুটে বাইরে আসতে দেখা যায়। মুখে মাস্ক পরে ছুট লাগাচ্ছিলেন তিনি। তাঁকে দেখে সরে যান সবাই। মুহূর্তের মধ্য়ে তাকে হাসপাতালে ফেরাতে ছুটে আসেন পিপিই পরা কিছু স্বাস্থ্য়কর্মী। তারাই রাস্তাসংক্রমণমুক্ত করে রোগীকে হাসাপতালে ঢোকান।

এই ঘটনায় রীতিমত আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে হাসপাতাল চত্বরে। ওই রোগীকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান, হাসপতাল থেকে পালাচ্ছেন।  যদিও হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, কেউ অসুস্থতার সুযোগে তাঁকে রেখে গিয়েছে। নিয়ম করে হয়তো ভর্তি করা হয়নি। যদিও বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে।

তবে ওই রোগী যে করোনাতেই আক্রান্ত তা সরকারিভাবে জানানো হয়নি। সম্প্রতি  একটি এম আর বাঙ্গুর হাসপাতালের একটি ভিডিয়ো ঘিরে উত্তাল হয় রাজ্য় রাজনীতি।ভিযোগ, বাঙ্গুর হাসপাতালে মৃতদেহের পাশেই রাখা হচ্ছে রোগীদের। নিজের টুইটারে এই ছবি আপলোড করেন আসানসোলের বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। এই ভিডিয়ো সত্যি কিনা তা জানতে চান তিনি।  যদিও শাসকদলের তরফে এই ভিডিও নিয়ে কোনও মন্তব্য় করা হয়নি।