বদলাচ্ছে না পরিস্থিতি। ফের রাজ্য়ে বাড়ল করোনা আক্রমণের দাপট। একদিনে বাংলায় করোনা নিয়ে প্রাণ হারালেন ৬৩জন। বুধবার যে সংখ্যাটা ছিল ৫৮ জন। পরিসংখ্যান বলছে, পুজোর আগে এই অবস্থাা জারি থাকলে আরও খারাপ পরিস্থিতি হবে পুজোর পরে।

মুখ্য়মন্ত্রী আশা করেছিলেন ২৫ সেপ্টেম্বরের মধ্য়ে রাজ্য়ে নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে করোনা পরিস্থিতি। কিন্তু সেই আশা পূরণ হয়নি। উল্টে গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্য়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩,৫২৬ জন৷ যা সংক্রমণে রাজ্যে একদিনে সর্বোচ্চ রেকর্ড৷  সব মিলিয়ে রাজ্যে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫,৪৩৯ জন৷ বুধবার আক্রান্তের হিসেবে সংক্রমণের সংখ্য়া ছিল ৩,৪৫৫ জন৷  রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২, ৮৪ ,৭৩৭ জন৷ যার মধ্য়ে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যাটা প্রায  ২৯ হাজার ৷

রাজ্য়ের করোনা বুলেটিন বলছে, এদিনও নতুন আক্রান্তের তুলনায় সুস্থ হয়ে উঠার সংখ্যাটা অনেক কম৷ একদিনে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২,৯৭০ জন৷ বুধবার এই সংখ্যাটা ছিল ৩,০২৪ জন৷

সব মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২, ৪৯ ,৭৩৭ জন৷  তথ্য বলছে রাজ্য়ে সুস্থতার হার ৮৭.৯৩ শতাংশ৷ বুধবার ছিল ৮৭.৯৭ শতাংশ৷ একদিনে যে ৬৩ জনের মৃত্যু হয়েছে তাদের মধ্যে কলকাতার ১১ জন৷ উত্তর ২৪ পরগনার ১৬ জন৷ এছাড়াও দক্ষিণ ২৪ পরগনার ৫,হাওড়ার ৬, হুগলির ৩ জন রয়েছেন এই তালিকায়।

একই পরিস্থিতি অন্য়ান্য় জেলাতেও। পশ্চিম বর্ধমান করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ১, পূর্ব বর্ধমানে ১, পূর্ব মেদিনীপুরে ৩, পশ্চিম মেদিনীপুরে ৫ জন৷ পাশাপাশি পুরুলিয়া মারা গিয়েছেন ২ জন৷ নদিয়ায় এই সংখ্য়াটা ৩, মুর্শিদাবাদে ১, জলপাইগুড়িতে ৩, কোচবিহারে ১ ও আলিপুরদুয়ারে ২ জন৷ পরিসংখ্য়ান বলছে,বাংলায় একদিনে ৪২,৪৪১ টি নমুনা টেস্ট হয়েছে৷ বুধবার এই সংখ্যাটা ছিল ৪২,৬৫১ টি৷ তুলনামূলক এদিন কম টেস্ট হয়েছে৷