করোনা আতঙ্ক ছড়িয়েছে সারা দেশেই। যার প্রভাব কলকাতা বিমানবন্দরেও। গত মঙ্গলবার বিমানবন্দর কর্মী ও নিরাপত্তরক্ষীদের একটি প্রশিক্ষণ দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের কর্মীরা। যার দরুণ করোনা মোকাবিলায় কড়া সতর্কতা জারি হয়েছে। তাই কলকাতা বিমানবন্দরে প্রত্য়েক যাত্রীদেরই মুখ মাস্কে ঢাকা। স্ক্যানিংয়ের পর মিলছে তাদের বিমানবন্দর থেকে বেরনোর সুযোগ।

আরও পড়ুন, করোনা মোকাবিলায় উড়ান না পাওয়ার আশঙ্কা, যাদবপুর ছাড়লেন জাপানি পড়ুয়ারা


সূত্রের খবর, বুধবার সকালে কলকাতা বিমানবন্দরে যাত্রীদের চোখেমুখে দেখা মিলল করোনার আতঙ্ক। এদের অধিকাংশই অবশ্য বিদেশি। বিমানবন্দর থেকে বুধবার যারা বেরিয়ে আসছেন তাদের সবার মুখেই মাস্ক দেখা গিয়েছে। এরা কারও সঙ্গে তেমন কথাও বলছেন না, লাগেজ নিয়ে সোজা বেরিয়ে যাচ্ছেন। সূত্রের খবর, বিমান বন্দর থেকে বের হওয়ার আগে যাত্রীদের থার্মাল স্ক্যানিংয়ের পর বিমানবন্দর ছাড়ার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে।

আরও পড়ুন, আম্রমুকুল আর পলাশ জানান দিচ্ছে বসন্তের, দোল উৎসবে মাতবে এবার শহর ও শান্তিনিকেতন

বিমানবন্দর সূত্রের খবর, প্রতিটি যাত্রীকে পরীক্ষা করা হচ্ছে। পাশাপাশি যদি কোনও যাত্রীর দেহে সংক্রমণ দেখা যায় তাহলে তাকে নিয়ে যাওয়া হবে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে। সেখানেই রয়েছে আইসোলেশন ওয়ার্ড। সম্প্রতি ৩ বিমান যাত্রীকে বেলেঘাটায় নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। অপরদিকে, মঙ্গলবার বিমানবন্দর কর্মী ও নিরাপত্তরক্ষীদের একটি প্রশিক্ষণ দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের কর্মীরা। কর্মীদের এবিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে, কতটা দূরত্ব থেকে যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলা যাবে এবং  সন্দেহজনক কিছু উপসর্গ ধরা পড়লে কী করা উচিত তা শেখানো হয়েছে । এছাড়াও বিমানবন্দরে যারা লাগেজ দেখাশোনা করেন তাদেরও প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।  সতর্কতা হিসেব বিমানবন্দরের কর্মী থেকে নিরাপত্তারক্ষী সবাই মাস্ক পরেই কাজ করছেন।

আরও পড়ুন, প্রচুর জলীয়বাষ্প ঢুকছে রাজ্যে, আজ বিকেলে ফের বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি