সীতারাম ইয়েচুরিকে আর রাজ্য়সভায় চাইছে না সিপিএম পলিটব্যুরো। পরিবর্তে নতুন মুখ দেখতে চাইছে তারা। খোদ রাজ্য়সভায় কংগ্রেস-সিপিএম-এর জোট  প্রার্থী ঠিক করতে আজ সোনিয়ার সঙ্গে বৈঠকে বসছেন ইয়েচুরি। শোনা যাচ্ছে, সিপিএমের তরফে রাজ্য় থেকে বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যকে পাঠাতে চাইতে বামেরা। কিন্তু তাতে সিলমোহর না পড়লে কানহাইয়া কুমারের নাম নিয়েও ভাবা হতে পারে। 

সিসিটিভি থাকতেও পালাল ১৩ জন নাবালক বন্দি, আড়িয়াদহের ধ্রুব আশ্রম ঘিরে রহস্য

রাজ্য়  নেতাদের মধ্য়ে বৈঠক হলেও এখনও সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি সিপিএম-কংগ্রেস। রাজ্য়সভার প্রার্থী নির্বাচন কংগ্রেস হাইাকমান্ডের হাতে থাকায় সোনিয়া গান্ধির ওপরই এর ভার ছেড়েছেন বিমান বসু-সোমেন মিত্ররা। জানা গিয়েছে,শনিবারই সিপিএম পলিটব্যুরোর মিটিংয়ে ঠিক হয়, বাম-কংগ্রেস জোটের প্রার্থী হিসাবে নতুন মুখ আনা হতে পারে। সেই অনুযায়ী আজ দোলের দিনই সোনিয়ার সঙ্গে বৈঠক করবেন সীতারাম।

দেশে প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে মৃত্যু মুর্শিদাবাদে

জানা গিয়েছে,বামেদের প্রথম পছন্দ বিকাশ ভট্টাচার্য। সেই নামে আপত্তি থাকলে তবেই কানহাইয়ার নাম ভাবা যেতে পারে। কারণ মোদী ব্রিগেডকে বেগ দিতে এই মুহূর্তে দেশে অন্যতম মুখ কানহাইয়া। সামনেই বিহারের নির্বাচন। দেখা যাচ্ছে, বিহারে কানহাইয়ার জনসভায় প্রচুর লোকের সমাগম হচ্ছে। সুবক্তা হিসাবে কানহাইয়াকে শুনতে যাচ্ছেন মানুষ। সেখানে নীতীশ কুমারের জেডিইউ-বিজেপি জোটকে ঠেকাতে বাম-কংগ্রেসের অন্য়তম হাতিয়ার হতে পারেন কানহাইয়া। এমনিতে কানহাইয়ার সঙ্গে ভালো সম্পর্ক কংগ্রেসের। তবে রাজ্য়সভায় কংগ্রেস কোনও অরাজনৈতিক ব্যক্তিত্বকে চাইছেন বলে শোনা যাচ্ছে। 

অধীরের খাসতালুকে তৃণমূলের অন্তর্দ্বন্দ্ব, কোন্দল মেটাতে মাঠে প্রশান্ত কিশোর

এপ্রিলেই মেয়াদ ফুরোচ্ছে ১৭ রাজ্য়ের ৫৫ জন রাজ্য়সভার সাংসদের। মেয়াদকাল ফুরোনোর  আগেই ২৬ মার্চ ফের হতে চলেছে রাজ্য়সভার ভোট। এমনই ঘোষণা করেছে নির্বাচন  কমিশন। ৬ মার্চ এই নিয়ে জারি করা হবে বিজ্ঞপ্তি। তার আগেই চলতি বছরে রাজ্য়সভার নির্বাচনের খুঁটিনাটি তুলে ধরেছে নির্বাচন কমিশন। কমিশনের বিবরণ বলছে, বিজ্ঞপ্তি জারির  পরই ১৩ মার্চের মধ্য়ে মনোনয়ন জমা দিতে হবে প্রার্থীদের। 

বাংলা থেকে এপ্রিলেই রাজ্য়সভা সাংসদের মেয়াদকাল ফুরোচ্ছে ৫ সাংসদের। যাদের  মধ্য়ে নাম রয়েছে, ঋতব্রত বন্দ্য়োপাধ্যায়, আহমেদ হাসান ইমরান,মনীশ গুপ্ত, যোগেন চৌধুরী ছাড়়াও তৃণমূলের কানওয়ার দীপ সিংহের। দল নতুন করে মনোনীত করলে বাকি রাজ্য়ের প্রার্থীদের সঙ্গে ১৬ মার্চের মধ্য়ে এদের মনোনয়নের স্ক্রুটিনি করবে কমিশন। এরপরই ২৬ মার্চ ভোটপর্ব।

আগামী ২ এপ্রিল মেয়াদকাল ফুরোচ্ছে বাংলার ৫ সাংসদের। আগে বাম সাংসদ থাকলেও এখন তৃণমূলে রয়েছেন রাজ্য়সভার সাংসদ ঋতব্রত বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। এই তালিকায় রয়েছেন আহমেদ হাসান ইমরান ছাড়াও কানওয়ার দীপ সিং বা  কেডি সিং। ইতিমধ্যেই রাজ্যসভায় তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করছেন তৃণমূল নেত্রী। সোশ্যাল মিডিয়ায় দলের চার প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  

রাজ্যসভায় তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থীরা হলেন দীনেশ ত্রিবেদী, সুব্রত বক্সি, অর্পিতা ঘোষ ও মৌসম নুর। দলের চার প্রার্থীর মধ্যে যে দুই জন মহিলা প্রার্থী সেদিকেও বিশেষভাবে দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ট্যুইট করে তিনি জানিয়েছেন, অর্পিতা, মৌসম, দীনেশ ও সুব্রত বক্সিকে তৃণমূল রাজ্য়সভায় মনোনীত করতে চলেছে। ট্যুইটে আন্তর্জাতিক নারী দিবসকেও হ্যাসট্যাগ করেছেন তিনি। পাশাপাশি লিখেছেন নারীদের ক্ষমতায়নের পক্ষে দল নিরন্তন প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তারই ফলস্বরূপ দলের অর্ধেক মহিলাকে রাজ্য়সভায় প্রার্থী করা হয়েছে।