এনআরসি নিয়ে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার পর ফের এক সুরে রাজ্যের শাসক-বিরোধী। হিন্দি, ইংরেজি, গুজরাতির পাশাপাশি বাংলা তথাআঞ্চলিক ভাষায় জয়েন্টের প্রশ্নপত্র চাইলেন সিপিআইএম নেতা সুজন চক্রবর্তী। টুইটারে একই কথা বলেছেন মুখ্য়মন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। জয়েন্টে বাংলায় প্রশ্নপত্র চেয়ে ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয সরকারের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে রাজ্য সরকার। বুধবার সেই কথা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্য়ায়। 

এদনি জয়েন্ট এন্ট্রান্স-এর প্রশ্নপত্র ইংরেজি, হিন্দির পাশাপাশি গুজরাতিতে করার সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করলেন বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী। তিনি বলেন, যে কেন্দ্রীয় সংস্থা এ ধরনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা অবিলম্বে প্রত্যাহার করুক। মানুষ এ ধরনের সিদ্ধান্ত কোনওদিনই মেনে নেবে না। দিল্লিতে সরকার গড়েছে বলেই মোদী কিংবা অমিত শাহ এই ধরনের সিদ্ধান্ত নিতে পারেন না।

সুজনবাবু বলেন, জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ইংরেজি, হিন্দির বাইরে যদি অন্য কোনও ভাষায় হতে পারে ,তাহলে বাংলাতে নয় কেন? বামপন্থীরা এ ধরনের সিদ্ধান্ত মেনে নেবেন না বলে হুঁশিয়ারি দেন তিনি। ঘটনাচক্রে এদিন সকালেই টুইটারে জয়েন্টের প্রশ্নপত্র হিন্দি, ইংরেজির বাইরে গুজরাতি হওয়ায় সওয়াল করেন মুখ্য়মন্ত্রী। তিনি বলেন, আমি গুজরাতি ভাষা ভালোবাসি। কিন্তু জয়েন্টের প্রশ্নপত্র গুজরাতির মতো আঞ্চলিক ভাষাতে হওয়ায় অন্যরা বঞ্চনার শিকার হল। যা কখনোই কাম্য নয়। জয়েন্টের প্রশ্নপত্র গুজরাতিতে হলে অবশ্য়ই বাংলাতেও হওয়া উচিত।  

এদিকে জয়েন্ট প্রসঙ্গে মমতার পাশে থাকলেও  প্রাইমারি শিক্ষকদের আন্দোলন নিয়ে মমতার সরকারকে বিঁধতে ছাড়েননি বাম নেতা। প্রাথমিক শিক্ষকদের আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে বাম নেতা বলেন, রাজ্য সরকার প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন সংক্রান্ত যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, তা দ্রুত কার্যকর করা উচিত। পরিস্থিতি এমন জায়গায় এসে দাঁড়িয়েছে যে, রাজ্য সরকারকে প্রাইমারি শিক্ষকরা আর বিশ্বাস করতে পারছে না। সরকার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল তা রক্ষা করতে পারছে না। তাই তাঁদের পথে নামতে হচ্ছে।