বেহালা সেন পল্লি স্টেট ব্যাঙ্কের সামনে ব্যাঙ্ক তুলে দেওয়ার প্রতিবাদে গ্রাহকদের বিক্ষোভ। গ্রাহকদের বক্ত্যব্য যদি ব্যাঙ্ক তোলারই থাকতো তাহলে কেন  ব্যাঙ্ক খোলা হল। স্থানীয় তৃণমূল সমর্থকরা ব্যাঙ্কের এই তুলে দেওয়ায় গ্রাহকদের সঙ্গেই প্রতিবাদে নেমেছে। ব্যাঙ্কে চিঠি পাঠিয়েছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও।

আরও পড়ুন, 'একা সমাজ পাল্টানো যায় না, এগোতে হবে সবাইকে', সোমবার আনন্দপুর কাণ্ডে বয়ান দেবেন নীলাঞ্জনা


রবিবার সকাল থেকে বেহালা সেন পল্লি স্টেট্ ব্যাঙ্কের সামনে ব্যাঙ্ক তুলে দেওয়ার প্রতিবাদে গ্রাহকদের বিক্ষোভ।  হঠাৎ ব্যাঙ্কের তরফ থেকে নোটিশ দেওয়া হয় ব্যাঙ্কটিকে তুলে দিয়ে ২ কিলোমিটার দূরে আর একটা স্টেট ব্যাঙ্কের সঙ্গে মার্জ করা হবে। এতে আপত্তি গ্রাহকদের। তাঁদের বক্তব্য প্রায় ৫৫০০ গ্রাহক রয়েছে, বেশিরভাগ রয়েছে বয়স্ক লোকেরা। তাঁদের পক্ষ্যে দূরে ব্যাঙ্ক এ গিয়ে পেনশন তোলা সম্ভব নয়। পাশাপাশি গ্রাহকদের বক্ত্যব্য যদি ব্যাঙ্ক তোলারই থাকতো তাহলে কেন ৪ বছর আগে ব্যাঙ্ক খোলা হল। আর ব্যাঙ্কে গ্রাহক নেই তাও নয়। তাহলে কী কারণে ব্যাঙ্ক তোলা হচ্ছে। তার কোনও নির্দিষ্ট কারণ দেখায়নি ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ। স্থানীয় তৃণমূল সমর্থকরা ব্যাঙ্কের এই তুলে দেওয়ার প্রতিবাদে গ্রাহকদের সঙ্গেই নেমেছে। 

আরও পড়ুন, বিশ্বের প্রথম ১০০ বিজ্ঞান নগরীর তালিকায় স্থান কলকাতার, গর্বে বুক ভরে যাচ্ছে শহরবাসীর

এলাকার লোকেরা জানাচ্ছে,  ব্যাঙ্ক নিজের  সিদ্ধান্তে অনড় থাকলে তারাও আন্দোলন চালিয়ে যাবে। 'কেন্দ্রীয় সরকারের ব্য়াঙ্ক সঙ্কোচনের নীতি অনুযায়ী বাংলায় ১৭৫ টি স্টেট ব্যাঙ্ক সরানো হয়েছে গিয়েছে। এবার বেহালা শাখাকেও সরানো হচ্ছে। এদিকে এখানে ২০ শতাংশ প্রবীণ গ্রাহক পেনশন হোল্ডার। এই শাখা তুলে দিলে এলাকার মানুষরা অথৈ জলে পড়বে' বলে জানালেন তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী  দীপাঞ্জন সেনগুপ্ত।পাশাপাশি বেহালা পশ্চিম বিধান সভার বিধায়ক পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও ব্যাঙ্কের  জেনারেল ম্যানেজারকে চিঠি পাঠিয়েছেন যাতে ব্যাঙ্কটা না তোলা হয়। কারণ ব্যাঙ্ক তুললে সবচেয়ে বেশি অসুবিধাতে পড়বে প্রবীণ গ্রাহকরা।

 

     

 

হেরেই খুশি বাকিরা, করোনায় সবাই পিছনে ফেলে এগিয়ে কলকাতা-উত্তর ২৪ পরগণা

বিষম খেয়ে শিশু মৃত্যু, হাসপাতালকে জরিমানা কমিশনের, কোভিড-ক্রাইমে ফের অভিযুক্ত ডিসান

চিকিৎসা সংক্রান্ত খরচ গোপন, কলকাতার ৬ হাসপাতালের বিরুদ্ধে মামলা স্বাস্থ্য কমিশনের

কোভিড আক্রান্তের ফ্ল্য়াটে ঝুলল তালা, বিপাকে পরিবার, রইল করোনা ক্রাইমের সাতকাহন