'মৃত কর্মীর পরিবার চাকরি পেল না-অথচ ১১১ জনের নতুন নিয়োগ হয় কী করে', উত্তর না মেলা অবধি কর্মবিরতির ডাক আলিপুর চিড়িয়াখানায়। শুক্রবার চিড়িয়াখানা ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট রাকেশ সিং-এর নেতৃত্বে লোক জন এসে বন্ধ করে দিল আলিপুর চিড়িয়াখানা।

আরও পড়ুন, মন টানছে মাইথনে, আজই বেরিয়ে পড়ুন, রইল কলকাতার কাছেই ঘুরতে যাওয়ার নতুন ৫ ঠিকানা

 

 

'মৃত কর্মীর পরিবার চাকরি না দিয়ে নতুন নিয়োগ হয় কী করে'


  জানা গিয়েছে, শুক্রবার সকালে ১১১ জন লোকের চিড়িয়াখানায় কাজে যোগদানের দিন ছিল। পরীক্ষাতে পাস করে তাঁরা শুক্রবার  কাজে যোগদান করতে আসে। কিন্তু তাঁর আগেই চিড়িয়াখানা ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট রাকেশ সিং-এর নেতৃত্বে লোক জন এসে তালা লাগিয়ে বন্ধ করে দিল আলিপুর চিড়িয়াখানা। মূলত তাঁদের দাবি, তাঁদের ৪ জন কর্মী যারা অনেকে দিন আগে চিড়িয়াখানায় কাজ করতে করতে মারা গিয়েছিল। কিন্তু তাঁদের পরিবারের কেউ এখনো চাকরি পায়নি। চাকরির কথা কর্তৃপক্ষকে বললে, বার বার বলা হতো-কাজ করার জন্য এখন জায়গা ফাঁকা নেই।  যখন ফাঁকা হবে তখন খবর দেওয়া হবে। তাহলে আজ কী ভাবে এই ১১১ জন কাজে সুযোগ পেল। তাই এখবর জানতেই  রাকেশ সিং-এর নেতৃত্বে লোক জন এসে বন্ধ করে দেয় আলিপুর চিড়িয়াখানা।

আরও পড়ুন, 'ইশকওয়ালা ফুড', শীতে মুড বদলাতে এখনই বেরিয়ে পড়ুন, রইল কলকাতার সেরা রেস্তোরার হদিশ

 

'উত্তর না মেলা অবধি আলিপুর চিড়িয়াখানা বন্ধ থাকবে' 


ইউনিয়নের তরফে জানানো হয়েছে, যত ক্ষণ না কর্তৃপক্ষ কোনও উত্তর দিচ্ছে ততক্ষন আলিপুর চিড়িয়াখানা বন্ধ থাকবে। ডিরেক্টরকেও ঘেরাও করা হয়েছে  এবং  মিটিং চলছে। যারা ঢুকেছিলো চিড়িয়াখানায়,  তাঁদের বার করে দেওয়া হয়েছে। বহু লোক দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে ছিল  চিড়িয়াখানায় ঢোকবার জন্য, তারা সবাই বাধ্য হয়ে বাড়ি ফেরত চলে গিয়েছে।

 

আরও পড়ুন, বেড়িয়ে পড়ুন বড়ন্তি, কলকাতার কাছেই সেরা ৫ ঘুরতে যাওয়ার জায়গার রইল হদিশ