শহর কলকাতায় প্রতিষ্ঠিত হল দেবী ধূমাবতীর মূর্তি। এবার থেকে লেক কালীবাড়িতেই পুজো দেওয়া হবে ধূমাবতী  দেবীকে। বৃহস্পতিবার অমবস্যা তিথিতে মূর্তি প্রতিষ্ঠা উপলক্ষে বিশেষ পুজো ও যজ্ঞ হয় লেক কালীবাড়িতে। এই পুজো উপলক্ষে গোটা দিন মন্দির প্রাঙ্গন ছিল জমজমাট। দূরদূরান্ত থেকে হাজির হন বহু ভক্ত।

আরও পড়ুন, জাঁকিয়ে শীত সপ্তাহের শেষে, কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির সম্ভাবনা

দক্ষিণ কলকাতার বিখ্য়াত এই লেক কালীবাড়ির মন্দিরে এমনিতে পুজা হয় দক্ষিণা কালীর। এর আগে একই সঙ্গে দেবী বগলা ও সন্তোষী মায়ের মূর্তি প্রতিষ্ঠা হয়েছে। এবার হল দশমহাবিদ্যার সপ্তম বিদ্যা দেবী ধূমাবতির মূর্তি। এ বিষয়ে মন্দিরের সেবায়েত নিতাইচন্দ্র বসু জানিয়েছেন, আমাদের এই লেক কালীবাড়ি দক্ষিণা কালীর পুজো হয়। করুণাময়ী কালীমাতার পুজোর পাশাপাশি এখানে দেবী বগলা, সন্তোষী মায়ের পুজো হয়। এবার সেই সঙ্গে যুক্ত হল দেবী ধূমাবতী। 

আরও পড়ুন, বাঘরোল হত্যায় হোক ৩ থেকে ৭ বছরের জেল,সওয়াল বন্য়প্রাণী কর্মী হিরক নন্দীর

আগামী দিনে এখানে শীতলা ও মনসা দেবীর মূর্তিও প্রতিষ্ঠা করা হবে। উল্লেখ্য়, লেক কালীবাড়ি হল কলকাতার রবীন্দ্র সরোবরের অর্থাৎ ঢাকুরিয়া লেকের ধারে সাউদার্ন অ্যাভিনিউ-এ অবস্থিত একটি কালীমন্দির। ১৯৪৯ সালে হরিপদ চক্রবর্তী এই মন্দিরটি প্রতিষ্ঠা করেন। মন্দিরটির পোষাকি নাম শ্রীশ্রী ১০৮ করুণাময়ী কালীমাতা মন্দির। মন্দিরের প্রতিষ্ঠিত কালীমূর্তিটির নাম  করুণাময়ী কালী । ২০০২ সালে মন্দিরটি সংস্কার শুরু হয়। ২০১৩ সালের মধ্যে মন্দিরটি একটি বিশাল মন্দিরে পরিণত করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।