'যারা তাঁদের সঙ্গে আছেন, তাঁরাও তাঁদের সঙ্গে নাই', কৌতুক আর হেঁয়ালি মিশিয়ে নিউটাউনের ইকোপার্কে প্রাতঃভ্রমণ ও প্রাণ ভরে নিশ্বাস নিয়েই সাতসকালেই খোঁচা দিলেন রাজ্যের বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। একেরপর এক নেতা-কর্মীর তৃণমূল ছেড়ে যাওয়া কিংবা জরুরী বৈঠক গুলিতে অতি গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের অনুপস্থিতি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ করে বলেন, ' আগে ঘর সামলান- পরে সভা করবেন'।

আরও পড়ুন, মন্ত্রিত্ব ছাড়ার পর আজ শুভেন্দুর প্রথম সভা মহিষাদলে, তাঁকিয়ে সারা বাংলা

 

 

'বছর শেষটা মোটেই ভাল যাচ্ছে না তৃণমূলের'

প্রসঙ্গত,  হলদিয়ায় সুজিত বসুর সভা, কাঁথিতে সভা তৃণমূলের তরফে সভা এবং ডায়মন্ড হারবারে অভিষেক বন্দ্য়োপাধ্যায়ও সভা করছেন। এ প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ তাঁর প্রতিক্রিয়ায় জানালেন,'ডিজাসস্টার ম্যানেজমেন্ট শুরু হয়েছে তৃণমূলে। ভাঙণ ঠেকাতে ব্যস্ত। যে নেতা কোনও দিনও বাইরে বেরোন না, তারাও বাইরে বেরোচ্ছেন। বছর শেষটা মোটেই ভাল যাচ্ছে না তৃণমূলের'। 

আরও পড়ুন, শুভেন্দু কি বিজেপিতে, কী বার্তা দিলেন দিলীপ

 

 

'আগে ঘর সামলান- পরে সভা করবেন'

মেদিনীপুরে ৭ ডিসেম্বর মমতার সভা প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ জানালেন,' জঙ্গলমহলের সঙ্গে যেভাবে প্রতারণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী, মানুষ তার জবাব দিয়ে দিয়েছে। আর তাঁরা মুখ ঘুরিয়ে নিয়েছে, তাই মুখ্যমন্ত্রী জঙ্গলমহলে পড়ে থাকলেও কোনও কাজ হবে না। সে জন্য শেষ চেষ্টা করে দেখছেন মুখ্যমন্ত্রী। আমরা তো নিয়মিত সভা করছি, ওনারা তো সভা সবে শুরু করেছেন। কারণ তৃণমূল কংগ্রেসের ভাষণ শুনতে কেউ আসে না। দূর দূর থেকে লোক নিয়ে আসতে হয়। তাই আগে ঘর সামলান- পরে সভা করবেন', মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যয়ের উদ্দেশ্য বলেন দিলীপ ঘোষ।

আরও পড়ুন, শীতে গেলেই হয় 'গড়চুমুক', রইল কলকাতার কাছে সেরা ৫ ঘুরতে যাওয়ার ঠিকানা

 

 'যারাও তাঁদের সঙ্গে আছেন, তাঁরাও তাঁদের সঙ্গে নাই'

মালদা জেলা তৃণমূল কংগ্রেসকে নিয়ে বসেছিলেন  অভিষেক বন্দ্য়োপাদ্যায়। সেখানেও ২-৩ জন অতি গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের অনুপস্থিত থাকতে দেখা গিয়েছে। এ প্রসঙ্গ তুলতেই করিয়ে বললেন, 'আসলে তৃণমূল নের্তৃত্ব দেখে নিচ্ছে যাচাই করে, কে সঙ্গে আছে, কিংবা কে নেই।' এরপর পুরো  অনেকটাই ফিল্মি দৃশ্যের কথা যেন মনে করিয়ে দিলেন দিলীপ ঘোষ। বললেন, 'যারাও তাঁদের সঙ্গে আছেন, তাঁরাও তাঁদের সঙ্গে নাই। এটাও বুঝতে পারবেন এখন মুখ দেখানোর জন্য আসতে হচ্ছে। ডিসেম্বর মাসে দুধ-আর জল সব আলাদা হয়ে যাবে।'

 

আরও পড়ুন, বেড়িয়ে পড়ুন বড়ন্তি, কলকাতার কাছেই সেরা ৫ ঘুরতে যাওয়ার জায়গার রইল হদিশ