অতীতে বিরোধীরা মোদীর  সম্পর্কে এই মন্তব্য করতেন।  এবার সেই একই মন্তব্য শোনা গেল খোদ বিজেপির রাজ্য় সভাপতি দিলীপ ঘোষের গলায়। দেশের  প্রধানমন্ত্রীকে ভালো ইভেন্ট ম্যানেজার বলে মন্তব্য করলেন তিনি। যার জেরে ফের মোদীকে নিয়ে বিরোধীদের খোঁচা শুনতে হল মেদিনীপুরের সাংসদকে। 

বাড়ি বাড়ি গিয়ে ডেঙ্গুর খোঁজ নেওয়ার কথা যাঁদের, তাঁরাই মাসখানেক ধরে ধরনায়

বাম, কংগ্রেস নেতারা নরেন্দ্র মোদীকে খোঁচা দিতে এই কথা বলতেন। এবার  প্রশংসা করতে গিয়ে মোদীর  সম্পর্কে সেই কথা বললেন দিলীপ ঘোষ। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভারত  সফরের পিছনে মোদীর অবদানের কথা উল্লেখ করলেন তিনি।  মোদীর সাফল্য তুলে ধরতে দিলীপবাবু বলেন, প্রধানমন্ত্রী ভালো ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট করতে পারেন। এত বড় স্টেডিয়ামে এমন অনুষ্ঠান আমরা আগে চিনে দেখতাম। এখন আমাদের দেশেও দেখলাম। প্রায় ২২ কিলোমিটার রাস্তা ট্রাম্প খোলা গাড়িতে গিয়েছেন। দেশ যে কত সুরক্ষিত, তা এখান থেকেই প্রমাণিত।

মায়ের উদ্দাম জীবনযাপন গ্রাস করেছিল মেয়েকে,রিয়াও ছিল রমার মতো

তবে বিজেপির রাজ্য় সভাপতির  এই বক্তব্য়েই এখন বাঁকা চোখে দেখছে বিরোধীরা। তাদের বক্তব্য় একদিকে দিল্লি জ্বলছে,  আর মোদী তাঁর বন্ধু ট্রাম্পকে নিয়ে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টে ব্যস্ত। এ থেকেই বোঝা যায় উনি কাদের প্রধানমন্ত্রী। অতীতেও মোদী  সম্পর্কে এই একই অভিযোগ করেছে কংগ্রেস। তাদের দাবি, ভালো মার্কেটিং করতে পারেন প্রধানমন্ত্রী। বার বার দেশবাসীকে ভুল বুঝিয়ে নিজের ঝুলিতে ভোট টানতে পারেন। 

ভূবনেশ্বর যাত্রায় জল্পনা, অমিত শাহের সঙ্গে কি আলাদা বৈঠক মমতার

উল্লেখ্য ভারত সফরে এসে  দিল্লির কথা শুনেও এটা দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলেছেন ট্রাম্প। পরিসংখ্যান বলছে,তিনদিনে রাজধানীতে হিংসায় ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। ২০০ জনেরও বেশি আহত । যাদের মধ্য়ে বেশিরভাগই চিকিৎসার পর বাড়ি চলে গিয়েছেন। তা সত্ত্বেও কমেনি হিংসা। সেনা নামানোর আর্জি জানিয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। কিন্তু এতকিছুর পরও মোদীকে এক প্রকার সব ধর্মের আশ্রয়দাতা বলে ফেলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। রাজ্য়  রাজনৈতিক মহলের দাবি, এহেন প্রধানমন্ত্রীকে ভালো ইভেন্ট ম্যানেজার বলে খুব একটা ভুল করেননি দিলীপ ঘোষ।