চিকিৎসক নিগ্রহের ঘটনায় উত্তাল গোটা বাংলা। কর্মবিরতির ডাক দিয়েছেন চিকিৎসকরা রাজ্য জুড়ে। সোমবার থেকেই মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছিলেন পরিবাহ। উৎকণ্ঠা আর উদ্বেগের সঙ্গে অপেক্ষা করছিলেন পরিবাহর পরিবার ও বন্ধুরা। আপাতত মল্লিকবাজা ইন্সটিটিউট অফ নিউরোসাইন্স হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়ে দিচ্ছেন আপাতত অনেকটা সুস্থ আছেন তিনি।
 
ঠিক কী হয়েছিল পরিবাহর?

সোমবার বিকেল থেকেই চিকিৎসায় গাফিলতির জেরে এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে, এই অভিযোগে হাসপাতালে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন মৃতের পরিজনরা। রাতের দিকে হাসপাতালে কর্তব্যরতজুনিয়র চিকিৎসক পরিবাহ মুখোপাধ্যায়কে বেধড়ক মারধর করা হয়। তাঁর ফ্রণ্টাল লোবে আঘাত লাগে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় ইনস্টিটিউট অফ নিউরোসাইন্সে। এর পরেই নিরাপত্তার দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন জুনিয়র ডাক্তাররা। 

এখন কেমন আছেন

সাংবাদিকদের আজ পরিবাহর চিকিৎসকেরা জানান, মাথায় গুরুতর আঘাত ছিল। দুই ঘণ্টা ধরে অপারেশন হয়েছে। রুগী এখন একটু ভালো নিজের হাতে খাওয়ায় খেয়েছে, কথা বলছে। কিন্তু যেহেতু ব্রেন অপারেশন হয়েছে, সংক্রমণের একটা সম্ভাবনা আছে । এখন রুগীকে অবজারভেশনে রাখা হবে। কত দিন রাখা হবে সেটা রুগীর স্বাস্থ্যের উপর নির্ভর করছে।

পরিবাবর ওপর এই আঘাত নামার পরেই ঘড়্গহস্ত হন গোটা রাজ্যের ডাক্তাররা। আটটি সংগঠন জানিয়ে দেয় গণছুটিতে যেতে চাইছেন তাঁরা। এদিন চিকিৎসকরা ওপিডিতে চিকিৎসা বন্ধ করে দিলে গোটা রাজ্যই বিপর্যস্ত। দফায় দফায় বৈঠক করেও কোনও সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। অন্য দিকে চিকিৎসকেরাও জানিয়ে দিয়েছেন তাঁদের দাবি না মানা হলে কর্মবিরতি প্রত্যাহার করবেন না তাঁরা।