বিগত কয়েক বছর ধরেই কলকাতার পুজো কমিটিগুলোর মূল লক্ষ্যই হয়ে উঠেছে মণ্ডপ থেকে মাতৃপ্রতিমায় বিশেষত্বের ছোঁয়া। তাই নজির গড়তে থিম পুজোর পাশাপাশি এবার সাবেকিপুজো মণ্ডপগুলিও একে অপরকে টক্কর দেওয়ার জন্য প্রস্তুত। শ্রীভুমির হাত ধরে শুরু হয়েছিল প্রতিমার গায়ে গহনার সাজ। গতবছর মাতৃপ্রতিমাকে সোনার শাড়ি পরিয়ে সেই রেকর্ডও ভেঙে দিলেন সন্তোষ মিত্র স্কোয়ার। 

আরও পড়ুনঃ  রাস্তায় পুজো নিয়ে কোনও বিধিনিষেধ নয়, জানাচ্ছে কলকাতা পুলিশ

মধ্য কলকাতার নাম করা এই পুজো মণ্ডপে প্রথম থেকেই থাকে নতুনত্বের চমক। মণ্ডপ জুড়ে থিমের সৃষ্টি কর্তাও এই পুজো কমিটির কর্ণধার প্রদীপ ঘোষ। গতবছরই সন্তোষ মিত্র স্কোয়ারে উপচে পড়া ভিরে নজর কেড়েছিল সকলের। মায়ের গায়ে উঠেছিল সোনার শাড়ি। তৈরি করা হয়েছিল বিশালাকার রথ। সেই রথ রুপোর পাত দিয়ে সাজিয়ে তোলা হয়েছিল। তবে এবারে চমক সম্পূর্ণ আলাদা। মাতৃপ্রতিমার অঙ্গে সোনা বা রুপো নয়, খোদ প্রতিমাই তৈরি হচ্ছে সোনা দিয়ে। দুর্গা প্রতিমার গায়ে থাকছে সোনার পাত। ফলেই খরচ হচ্ছে ১৭ কোটি টাকা। 

প্রতিমার গায়ে সোনার পাত দিতে লাগছে মোটের ওপর ৫০ থেকে ৬০ কেজি সোনা। ফলেই খরচও অনেক। সন্তোষ মিত্র স্কোয়ার মানেই প্রতিমাসহ মণ্ডপেও থাকবে চমক। তবে থিমের মোড়কে মণ্ডপ সাজাতে এবার তুলে ধরা হবে প্রভুপাদ-এর প্রকাণ্ড মন্দির। ২০ টন কাঁচ দিয়ে তৈরি করা হবে মণ্ডপের ভেতরের অংশ। শীঘ্রই শুরু হবে প্রতিমা গড়ার কাজ। আগামী ১৬ই জুলাই খুঁটিপুজো সারবে সন্তোষ মিত্র স্কোয়ার।