একেই বলে ১৮০ ডিগ্রি বদল। গতকালই জানা গিয়েছিল, নবান্ন থেকে কলকাতা পুলিশকে বার্তা দেওয়া হয়েছিল রাস্তা আটকে এবার আর পুজোর আয়োজন চলবে না। খবর প্রকাশিত হওয়ার পরে নানা মহলে তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হওয়ায় সেই নির্দেশিকাকে নস্যাৎ করল কলকাতা পুলিশ।

এদিন কলকাতা পুলিশ তাঁদের ফেসবুক পেজে লেখে, "সংবাদমাধ্যমের একাংশে দুর্গাপুজার অনুমতি নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে।নিহিত স্বার্থ নিয়ে কিছু মানুষও এই বিভ্রান্তি ছড়ানোয় শরিক হয়েছেন।আপনাদের জানাই, এ বছরের পূজায় অনুমতির ক্ষেত্রে নতুন কোনও বিধিনিষেধ আরোপ করা হচ্ছে না।আগের বছরগুলিতে যে পদ্ধতিতে পুজোর অনুমতি দেওয়া হত, এ বছরও সেই নিয়মই চালু থাকবে।"

প্রসঙ্গত গত বৃহস্পতিবার শোনা গিয়েছিল ঠিক অন্য কথা। সূত্র মারফত খবর পাওয়া গিয়েছিল  নবান্ন থেকে থেকে সরাসরি বার্তা দেওয়া হয় থানাগুলিতে।  বলা হয়েছিল অনুমোদনের বিষয়ে সতর্ক হবে পুলিশ। কলকাতার রাস্তায় পুজোর সময় মানুষের যাতায়াতে যাতে কোনও অসুবিধে না হয় তা সুনিশ্চিত করতেই নতুন নিয়ম লাগু হবে বলে জানা গিয়েছিল। আরও জানা যায়, শুধু থানাই নয়, পুজো কমিটিগুলিতেও যাচ্ছে এই নির্দেশিকা। বলা হচ্ছিল, এই নোটিশ পেলে পুজো কমিটিগুলিও সেক্ষেত্রে অনুমেোদন করার সময়ে অন্যায্য দাবি করার থেকতে বিরক্ত থাকবে। রাস্তায় জমা অথৈ জনস্রোতকে নিয়ন্ত্রণ করা পুলিশের পক্ষে অনেক সহজ হবে।  

আরও পড়ুনঃ পথ আটকে দুর্গাপুজো বন্ধ, রথের দিনই নির্দেশিকা জারি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের
দুর্গাপুজাকে সম্মান জানাবে ইউনেস্কো, বিশ্বজুড়ে তোরজোড় শুরু

এদিন কলকাতা পুলিশের তরফে জানানো হচ্ছে, কোনও বদল হচ্ছে না অনুমোদনের নিয়মে। গতবারের নিয়মেই হবে পুজোগুলিকে অনুমোদন দেওয়ার যাবতীয় প্রক্রিয়া।