মাঝেরহাট সেতুর কাজ শেষ হওয়া নিয়ে এবার রাজ্যকে পাল্টা চিঠি দিল রেল। সেতুর কাজ শেষ হতে দেরি হওয়ায় রেলের দিকে আঙুল তুলে চিঠি পাঠিয়েছিল রাজ্য সরকার। এবার সেই চিঠির জবাব দিয়ে পাল্টা রাজ্যের উপরেই দায় চাপালো রেল মন্ত্রক। 

গত বছর ৪ সেপ্টেম্বর ভেঙে পড়েছিল মাঝেরহাট সেতু। এর পর সেখানে নতুন সেতু তৈরির সিদ্ধান্ত নেয় রাজ্য সরকার। কিন্তু নতুন যে সেতু তৈরি হবে, তার মাঝের অংশের সুপার স্ট্রাকচার বসানোর কাজ পূর্ব রেলের করার কথা। কিন্তু রেল সেই রেলমন্ত্রী পীযুষ গয়ালকে চিঠি লেখেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কাজ দ্রুত শেষ করার জন্য রেলমন্ত্রীকে হস্তক্ষেপের আবেদন মুখ্যমন্ত্রী। 

মুখ্যমন্ত্রীর এই চিঠির পরেই নড়েচড়ে বসে রেল দফতর। মঙ্গলবার সকালেই নির্মীয়মাণ মাঝেরহাট সেতু পরিদর্শনে যান পূর্ব রেলের জেনারেল ম্যানেজার সুনীত শর্মা। তার পর সেখানে যান রেলের ইঞ্জিনিয়াররাও। এর পরেই রেলের তরফ থেকে পাল্টা চিঠি পাঠানো হয়েছে রাজ্য পূর্ত দফতরকে। সেখানে অভিযোগ করা হয়েছে, সেতুর মাঝের যে সুপার স্ট্রাকচার বসানো হবে, তা বসানোর চূড়ান্ত নকশা কেমন হবে, সেই রিপোর্টই এখনও জমা দেয়নি রাজ্য সরকার। ওই রিপোর্ট হাতে না পাওয়া পর্যন্ত যে তাদের পক্ষে কিছু করা সম্ভব নয়, রাজ্যকে তা জানিয়ে দিয়েছে পূর্ব রেল কর্তৃপক্ষ। 

আরও পড়ুন- রেলের টালবাহানায় আটকে নির্মাণকাজ, মাঝেরহাটে সেতু নিয়ে রেলমন্ত্রীকে চিঠি মুখ্যমন্ত্রীর

রাজ্য সরকারের প্রাথমিক লক্ষ্য ছিল এ বছরের মধ্যেই মাঝেরহাট সেতুর কাজ সম্পন্ন করা। কিন্তু এখনও বিভিন্ন পর্যায়ে রেলের অনুমোদন দরকার রাজ্যের। আগামী বছরের শুরুতেই গঙ্গাসাগর মেলা রয়েছে। সেদিকে তাকিয়েই সেতুর কাজ দ্রুত শেষ করাই এখন লক্ষ্য রাজ্য সরকারের। কিন্তু রেল- রাজ্য দোষারোপ এবং পাল্টা দোষারোপে তা আদৌ সম্ভব হয় কি না, সেটাই এখন দেখার।