প্রতিষেধক বের হয়নি এখনও। করোনা ভাইরাসের ওষুধও নেই। একবার ভাইরাসে আক্রান্ত হলে মৃত্যুর আশঙ্কাই বেশি বলছেন চিকিৎসকরা। যদিও বেশকিছু চিকিৎসকের দাবি, গরম পড়লেই কাবু হবে করোনা ভাইরাস।

স্বস্তিতে রাজ্য়বাসী, মুর্শিদাবাদের মৃত যুবকের দেহে পাওয়া গেল না করোনা ভাইরাস

চিন ছাড়িয়ে করোনা আতঙ্ক এখন গ্রাস করেছে গোটা বিশ্ব। চিন ছাড়াও মারণ ভাইরাসে সবথেকে বেশি আক্রান্ত হয়েছে ইতালি, ইরান। বাদ থাকেনি ফ্রান্স ছাড়াও তৃতীয় বিশ্বের একাধিক দেশ। ভারতেও ৪২ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত। যার ফলে করোনা এখন বিশ্বের চিন্তা। তবে কিছু চিকিৎসক মনে করছেন, তাপমাত্রা বাড়লেই ত্রাস কমবে এই ভাইরাসের। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, অযথা গুজবে কান না দিয়ে মাস্ক পরে বেশি জল খান তাতেই  ভাইরাস থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব। 

এবার করোনা সন্দেহে কাজাখস্তান ফেরত প্রৌঢ়, দক্ষিণ কলকাতার নার্সিংহোমে শোরগোল
 
সম্প্রতি বাইপাসের ধারে একটি পাঁচতারা হোটেলে ন্যাশনাল সেমিনারের আয়োজন করা হয়। সাতটি দেশ ছাড়াও  রাজ্যের শতাধিক চিকিৎসক উপস্থিত ছিলেন সেই সম্মলনে। যেখানে ইন্ডিয়ান অ্যাকাডেমি অফ পেডিয়াট্রিক কোল্ড ফিল্ড ব্রাঞ্চ চিকিৎসক অতনু ভদ্র জানান, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তরফ থেকে এই ভাইরাসটির নাম দেওয়া হয়েছে  SARS COV2। আর এর দ্বারা সৃষ্ট রোগের নাম দেওয়া হয় COVID 19। এই রোগ নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু  নেই। সাধারণ সর্দি কাশির মতোই এই ভাইরাস। গরম বাড়লে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ অনেকটাই কমে যাবে।  গ্রীষ্মে তাপমাত্রা ৩৫ ডিগ্রির বেশি হলে এই ভাইরাসের বেঁচে থাকা কঠিন হবে। 

আন্দোলনে মাদকাসক্ত মহিলারা, নিজের মন্তব্য়ের সাফাই দিলেন দিলীপ

রাজ্য়ের বর্তমান করোনা পরিস্থিতি বলছে,সোমবারই করোনা ভাইরাস সন্দেহে দক্ষিণ কলকাতার নার্সিংহোমে ভর্তি হয়েছেন কাজাখস্তান ফেরত এক প্রৌঢ়৷  রোগীর দেহে করোনার উপসর্গ দেখা দিলেও এখনও রক্তের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে পায়নি চিকিৎসকরা। এদিকে, আক্রান্তের পরিবারের অভিযোগ, নমুনা পরীক্ষা করাতে গিয়ে হেনস্থা হতে হয়েছে তাদের। বেলেঘাটা আইডি ও নাইসেডের থেকে সাহায্য় পাননি  তাঁরা।

এদিকে গতকালই সৌদি আরব ফেরত মুর্শিদাবাদের যুবকের মৃত্যুতে করোনা সন্দেহ দানা বেঁধেছিল রাজ্য়ে। দ্রুত ওই যুবকের দেহের নমুনা পরীক্ষাগারে  পাঠানো হয়েছিল। স্বাস্থ্য় দফতর জানিয়েছে,মৃত যুবকের দেহে করোনা ভাইরাস পাওয়া যায়নি৷ জানা গিয়েছে, রবিবার করোনা ভাইারাসে আক্রান্ত সন্দেহে মৃত্যুর ঘটনা ঘটে মুর্শিদাবাদের এক ব্যক্তির। জানা গিয়েছে, এই ব্যক্তি সৌদি আরব থেকে সম্প্রতি মুর্শিদাবাদে ফিরেছিলেন। সৌদি থেকে ফেরার পরেই জ্বর ছিল শরীরে। প্রথম থেকেই ডাক্তাররা তাকে মুর্শিদাবাদ হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখেন। পরে তাঁর রক্তের নমুনা পাঠানো হয়েছে বেলেঘাটা আইডিতে।