শপথ নেওয়ার পরে মঙ্গলবার থেকে দফতরে প্রবেশ করলেন নতুন মন্ত্রীরা। তবে সবাই নতুন মুখ নন, কারো কারো দফতর বদলেছে। মঙ্গলবার থেকে পরিবহন দপ্তরের দায়িত্ব গ্রহণ করলেন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। পাশাপাশি, দমকল দফতরের দায়িত্বভার নতুন করে গ্রহণ করলেন মন্ত্রী সুজিত বসু। 

এদিন দায়িত্ব নিয়ে ফিরহাদ বলেন নতুন অটো রুট আর কোথায় করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে পরিবহন দফতরের আধিকারিকদের সঙ্গে। এর পাশাপাশি, কীভাবে আগামী দিনে কলকাতা শহরের দূষণ কমানো যায়, সে বিষয়েও আলোচনা চলেছে। মন্ত্রী জানান, পরিবহন দফতর দূষণ কমানোর বিষয়ে বিশেষ ব্যবস্থা নেবে। পেট্রোল-ডিজেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় ব‍্যাটারি চালিত যানবাহনের দিকে নজর বেশি দেওয়া হবে। 

ফিরহাদ হাকিম জানান, গাড়িতে ওভার লোডিং হলে অতিরিক্ত ফাইন দিতে হবে‌। যাতে কেউ ওভার লোডিং না করতে পারে, সেদিকে কড়া নজর রাখবে প্রশাসন। কারণ ওভার লোডিং-এর জন্য গাড়ি থেকে অতিরিক্ত ধোঁয়া বেরিয়ে পরিবেশকে দূষিত করছে। ওভার লোডিং জন্য রাস্তা ভাঙছে। তিনি আরও জানান অফিস টাইমে রাস্তায় সরকারি বাসের সংখ্যা বাড়ানো লক্ষ্য পরিবহন দফতরেরয এই বিষয়ে পদক্ষেপ করা হবে। 

ফিরহাদ হাকিমের সঙ্গেই এদিন সল্টলেক বিকাশ ভবনে দমকল দফতরের দায়িত্বভার নিলেন সুজিত বসু। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের ফায়ার ও ইমারজেন্সি সার্ভিসের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী হয়েছেন বিধাননগর বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক সুজিত বসু। পুনরায় দমকল বিভাগের দায়িত্ব পেয়েছেন তিনি। 

মঙ্গলবার সল্টলেক বিকাশ ভবনে দমকল দফতরে দায়িত্বভার বুঝে নেন মন্ত্রী। উপস্থিত ছিলেন ডিজি ফায়ার, প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি সহ অন্যান্য আধিকারিকরা। দায়িত্ব নেওয়ার পর সুজিত বসু জানান, তার প্রথম কাজ হল কোভিড এর বিরুদ্ধে লড়াই করা।