যাদবপুর বিশ্ববিদ্য়ালয়ের পড়ুয়ার শ্লীলতাহানি ঘিরে চাঞ্চল্য় ছড়াল বিত্রমগড়ে। বিজেপির সভা শেষ হয়ে যাওয়ার পরই উঠে আসে পড়ুয়ার শ্লীলতাহানির অভিযোগ। ওই ছাত্রী বর্তমানে যাদবপুর বিশ্ববিদ্য়ালয়ে সমাজবিদ্যা বিভাগের দ্বিতীয় বিভাগে পড়াশোনা করছেন। তার অভিযোগ, বিজেপির সভা থেকে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে কটুক্তি করা হয়৷ এরপরেই পাল্টা সিএএ-র বিরুদ্ধে সরব হন ওই ছাত্রী । তাঁর সঙ্গে ছিলেন বন্ধু অর্জুন কর।


সূত্রের খবর,  অর্জুনের উপর চড়াও হন বিজেপিকর্মীরা বলে অভিযোগ জানানো হয় ওই পড়ুয়ার তরফে।  বিজেপির সভা শেষ হয়ে যাওয়ার পরই, শুরু হয় ব্য়াপক মারধর। অভিযোগ, বিজেপিকর্মীরাতার বন্ধু  অর্জুনকে মারছে দেখে   ওই ছাত্রী বাধা দেন। এরপরই  যাদবপুর বিশ্ববিদ্য়ালয়ের ওই  ছাত্রীকে মারধর ও হেনস্থা করা হয় বলেও অভিযোগ। ইতিমধ্য়েই যাদবপুর থানায় অভিযোগ জানিয়েছেন পড়ুয়া ও তাঁর বন্ধু । শ্লীলতাহানি, মারধর-সহ বেশ কয়েকটি ধারায় অভিযোগ জানিয়েছেন তাঁরা।


সম্প্রতি সিএএ বিরোধী আন্দোলন উত্তাল চেহারা নিয়েছে দেশ।বিশেষ করে অগ্নিগর্ভ চেহারা নিয়েছে অসম, বাংলা , দিল্লি ও উত্তরপ্রদেশ। যার মধ্য়ে সবথেকে খারাপ অবস্থা হয়েছে বিজেপি শাসিত ইউপি-র। পুলিশের সঙ্গে লাগাতার সঙ্গে লাগাতার সংঘর্ষে জড়িয়েছেন বিক্ষুব্ধ জনতা। অসম বাংলা, দিল্লি,  উত্তরপ্রদেশের পাশাপাশি অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে কলকাতায়। আর তারই মধ্য়ে জেএনউ এবং যাদবপুর বিশ্ববিদ্য়ালয় একই সঙ্গে পথ হাটা শুরু করেছে। লাগাতার সিএএ বিরোধি আন্দলনে নেমেছে  যাদবপুর বিশ্ববিদ্য়ালয়ের পড়ুয়ারা। আর তারপরই বিজেপির সভার মধ্য়ে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে কটুক্তি মেনে নিতে পারেনি ওই পড়ুয়ারা। তাই তারা ফের সিএএ প্রতিবাদে নামেন। তখনও বিজেপি কর্মীরা তার উপর চড়াও হয় বলে অভিযোগ। অবশ্য় যাদবপুর বিশ্ববিদ্য়ালয়ের পড়ুয়ার শ্লীলতাহানি অভিযোগ নিয়ে বিজেপির তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি।