ইরান আমেরিকা যুদ্ধং দেহি আবহের মাঝে চড়চড়িয়ে উঠছিল সোনার দাম। কলকাতায় এক লাফে ১০ গ্রাম সোনার দাম বেড়ে গিয়েছিল অনেকটাই। কিন্তু দুদিন যেতে না যেতেই মহানগরে রেকর্ড পতন ঘটল সোনার দামে। কলকাতায় ১০ গ্রাম সোনার দাম কমল  ১১৪০ টাকা। যার জেরে তড়িঘড়ি সোনার দোকানমুখী হল ক্রেতারা। 

আমেরিকা ইরানে হামলা চালানোর দিনই কলকাতায় বেড়ে গিয়েছিল সোনার দাম। বুধবার ১০ গ্রাম ২২ ক্যারাট সোনার দাম ছিল ৪০,৪৯০ টাকা। সেটা কমে বৃহস্পতিবার হয়েছে ৩৯,৩৫০ টাকা। একই ভাবে কমেছে ২৪ ক্যারাট সোনার দাম। একদিনে ১,০৩০ টাকা কমে বৃহস্পতিবার ১০ গ্রাম ২৪ ক্যারাট সোনার দাম হয়েছে ৪০,৭৫০ টাকা। এমনিতে সেনসেক্স কমলে সোনার বাজার দর বাড়ে। এরকমই একটা ধারণা রয়েছে সাধারণ মানুষের মধ্য়ে। কারণ সেনসেক্সের পতল হলে সোনাকেই ভবিষ্য়ৎ মূলধন হিসাবে আকড়ে ধরেন ক্রেতারা। এবারও তার ব্য়তিক্রম হয়নি।

বিশ্ব বাজারের পরিসংখ্য়ান বলছে,গত পাঁচ মাস ধরে বেড়েই চলেছিল সোনার দাম। এক সময় যার জেরে ভারতে সোনার চাহিদা বিপুলভাবে কমে যায়। বেগতিক দেখে বিয়েতেও সোনার জিনিসের পরিবর্তে নগদ উপহার বাড়তে থাকে। যদিও কলকাতার ব্যবসায়ীরা আশা করেছিলেন,পৌষ মাস পড়ার আগে সোনার চাহিদা বাড়বে। কারণ পৌষ মাসে হিন্দু শাস্ত্র মতে বিয়ে হয় না।

সেকারণে পৌষের আগেই বিয়ের অলঙ্কার বা সোনার জিনিসপত্র কিনে রাখবেন অনেকেই। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সোনার দাম বেশি থাকায় সেপথে হাঁটেনি কলকাতা। দিওয়ালি, ধনতেরসেও আশানুরূপ কেনাকাটা হয়নি। সম্প্রতি ইরানে মার্কিন আক্রমণে সোলেমানির মৃত্যুর পরে সোনার দাম বাড়তেই থাকে। আশা করা হয়েছিল,সোনার এই মূল্যবৃদ্ধির গতি একই রকম থাকবে। কিন্তু দেখা গেল, হঠাৎ ছন্দপতন সোনার দামে।