চল্লিশের দিন যুদ্ধ শেষ করলেন বাংলার বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্য়ায়। রবিবার দুপুরে কলকাতার বেলভিউ হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মাত্র ছিয়াশি বছর বয়সেই তাঁর চলার পথ স্তব্ধ হয়েগেল। বর্ষীয়ান অভিনেতার প্রয়ানে শোকস্তব্ধ সিনেমা জগৎ। ট্যুইটে গভীর শোকপ্রকাশ করলেন বাংলার রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

কিংবদন্তী অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্য়ায়ের প্রয়াণে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় গভীর শোকপ্রকাশ করে ট্যুইটে লিখেছেন, ''প্রবীণ অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্য়ায়ের প্রয়াণে গভীরভাবে শোকপ্রকাশ করছি। তাঁর পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানাই। এই শূন্যতা পূরণ করা খুবই কঠিন''।

 

 

 

ট্যুইটে তিনি আরও লেখেন, ''তিনিই প্রথম ভারতীয় চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব, যাঁকে অর্ডার দেজ আর্টস ও ডেস লেট্রেস ফ্রান্সের শিল্পীদের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ সম্মান দেওয়া হয়েছি। এছাড়াও দাদা সাহেব ফালকে পুরস্কার বিজয়ী তিনি''।

আরও পড়ুন-দার্জিলিং রাজভবনে রাজ্যপালের দীপাবলি উদযাপন, ছবি শেয়ার করলেন জগদীপ ধনখড়

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত সেপ্টেম্বরে কলকাতার বেলভিউ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্য়ায়। একসময় তিনি ক্য়ান্সারেও আক্রান্ত হয়েছিলেন। শারীরিক অসুস্থতার মধ্য়েও হাসপাতালে থেকে জীবনের সঙ্গে লড়াই করেছেন। শারীরিক অবস্থার কখনও উন্নতি আবার কখনও অবনতিও হয়েছে। এই অবস্থার মধ্য়েই চলছিল তাঁর হাসপাতাল-বন্দি জীবন। টানা ৪০ দিন লড়াই করার পর রবিবার দুপুরে চলে গেলেন না ফেরার দেশে।