কোভিড পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার থেকে সমস্ত লোকাল ট্রেন বন্ধ। তবে শুধু লোকাল ট্রেনই নয়, এবার শুক্রবার বাতিল হচ্ছে একাধিক দূরপাল্লার ট্রেন। পশ্চিমবঙ্গ, বিহার, ঝাড়খন্ড মিলিয়ে অন্তত ১৬ টি ট্রেন বাতিল করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন, শুধু পশ্চিমবঙ্গেই কোভিডে একদিনে ১০০-র বেশি মৃত্যু, সংক্রমণে শীর্ষে উত্তর ২৪ পরগণা 

 

 


রেল সূত্রে খবর, আগামী ৭ মে থেকে পরবর্তী নির্দেশ না হওয়া পর্যন্ত এই ট্রেনগুলি বাতিল করা হয়েছে। পূর্ব রেলের এক প্রবীণ আধিকারিকের মতে, এই ট্রেনগুলি গত বছর করোনার সময়ে চালানো হয়েছিল। কিন্তু কখনও খুব বেশি যাত্রী পাওয়া যায়নি। এদিকে একুশে কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতি বাংলায়। যার জেরে যাত্রী সংখ্যা এবারও অনেক কমে গিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে রেলওয়ে এই ট্রেনগুলি বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অপরদিকে, বৃহস্পতিবার থেকে সমস্ত লোকাল ট্রেন বন্ধ। সরকারি ও বেসরকারি বাস রাস্তায় নামবে ৫০ শতাংশ, মেট্রো রেলও একইভাবে ৫০ শতাংশ কমবে। যার জেরে চরম ভোগান্তির মুখে ফের অফিস টাইমের সব যাত্রী। তাই পরিবহণে বেশিরভাগ চাপ পড়লেও ভীড় নিয়ন্ত্রন নিয়ে কড়া বার্তা আগেই জানিয়েছে রাজ্য সরকার। তবে দূরপাল্লার ট্রেনে উঠার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে যাত্রীদের কভিদ পরীক্ষার রিপোর্ট দেখাতে হবে ট্রেনে ওঠার আগে । তবে গত বারের মতো এবারেও রেল কর্মীদের জন্য বিশেষ ট্রেন চালাচ্ছে ভারতীয় রেল । যার কারণে শুনশান হাওড়া স্টেশন চত্বর, জনমানুষ নেই বললেই চলে । স্টেশনে প্রবেশ ও বাহিরের  জন্য নির্দিষ্ট করা হয়েছে গেট ।  

 

 

 

আরও পড়ুন, Live Covid 19- বাংলায় একদিনে রেকর্ড মৃত্যু, আক্রান্ত শতাধিক, কোভিড নিয়ে মোদীকে চিঠি মমতার 

 

 

আরও পড়ুনভয়াবহ কোভিড পরিস্থিতিতে বিজয় মিছিল মালদহে, 'সংক্রমণ বাড়লে দায়ী হবে TMC', সাফ জানাল BJP 


 
প্রসঙ্গত, করোনা রুখতে একাধিক নির্দেশ দিয়েছে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাজার করে এলে বা বাইরে থেকে এলে হাত ধুতে হবে এবং স্যানিটাইজ করতে হবে।  মাস্ক পরতে হবে, মাস্ক না পরলে কড়া ব্যবস্থা। ৫০ শতাংশ হাজিরা সরকারি ও বেসরকারি অফিসে। শপিং মল, বিউটি পার্লার, স্পোর্টস কমপ্লেক্স, সুইমিং পুল, জিম, শপিং কমপ্লেক্স, সিনেমা হল, রেস্তোরাঁ, অডিটোরিয়াম, স্পা সেন্টার ও হিলিং সেন্টার- পুরোপুরি বন্ধ। সামাজিক, সাংস্কৃতিক, শিক্ষামূলক, বিনোদনমূলক জমায়েতে ৫০ শতাংশের বেশি লোক নয়। বিবাহ অনুষ্ঠান,সাংস্কৃতিক জমায়েতে ৫০ জনের বেশি নয়। এই ধরণের জমায়েতের জন্য আগে থেকে অনুমতি নিতে হবে। অনুমোদন দেওয়ার নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে জমায়েত করতে হবে। বাজার, রিটেল আউলেট, স্ট্যান্ড অ্যালোন শপ সকালে ৭টা থেকে ১০টা এবং বিকেল ৫টা থেকে ৭টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় জমায়েত, সমাবেশে ৫০ শতাংশ ভিড়। এবং মানতে হবে সামাজিক দূরত্ব বিধি, আগে থেকে অনুমতি থাকতে হবে।