Asianet News BanglaAsianet News Bangla

আপাতত স্বস্তি কেষ্ট-কন্যার, টেট সংক্রান্ত মামলায় হাজিরার নির্দেশ খারিজ করল আদালত

বুধবার অনুব্রত-কন্যার নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ তুলে আদালতে টেট সংক্রান্ত একটি অতিরিক্ত হলফনামা জমা দেওয়া হয়। তাঁর ভিত্তিতেই ২৪ ঘন্টার মধ্যে চাকরির সমস্ত নথি সমেত সুকন্যা মণ্ডল ও অভিযুক্ত বাকি ছ'জনকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

Justice Abhijit Gangopadhyay dismissed Anubrata s daughter Sukanya Mondal s order to appear in court
Author
Kolkata, First Published Aug 18, 2022, 5:54 PM IST

টেট সংক্রান্ত মামলায় আপাতত স্বস্তি কেষ্ট-কন্যার। সুকন্যার আদালতে হাজিরা খারিজ করলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। সুকন্যা সহ বাকি ছয় জনেরও হাজিরাও খারিজ করল আদালত। 
বুধবার অনুব্রত-কন্যার নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ তুলে আদালতে টেট সংক্রান্ত একটি অতিরিক্ত হলফনামা জমা দেওয়া হয়। তাঁর ভিত্তিতেই ২৪ ঘন্টার মধ্যে চাকরির সমস্ত নথি সমেত সুকন্যা মণ্ডল ও অভিযুক্ত বাকি ছ'জনকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। 
আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী এই হাজিরা দিতে কলকাতা পৌঁছন সুকন্যা, কিন্তু শুনানিতে এই সংক্রান্ত পুরোনো নির্দেশ ফিরয়ে নেওয়া হয়। বিচারপতি জানান বুধবার টেট সংক্রান্ত যে অতিরিক্ত হলফনামা জমা দেওয়া হয় তা যথেষ্ট গ্রহণযোগ্য নয়, তাই এই হলফনামা বাতিল করা হয়েছে। সেই কারণেই এই সংক্রান্ত পুরনো নির্দেশও খারিজ করছে আদালত। পাশাপাশি তিনি এও বলেন যে সুকন্যার নামে আলাদা করে মামলা করলে তা শোনা হবে। 

আরও পড়ুনঘরে বসেই মাইনে নেন 'দিদিমণি' সুকন্যা, অনুব্রতর মেয়ের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ 


প্রসঙ্গত, গত বুধবার বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের এজলাসে শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলার শুনানি ছিল। শুনানি চলাকালীন আইনজীবী ফিরদৌস শামিম একটি অতিরিক্ত হলফনামায় সুকন্যা মণ্ডলের বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা করেন। আইনজীবীর দাবি, টেট পরীক্ষা না দিয়েই প্রাথমিক স্কুলে চাকরি পেয়েছেন অনুব্রত-কন্যা সুকন্যা মণ্ডল। তিনি আরও দাবি করেন, চাকরি পাওয়া ইস্তক কোনও দিন স্কুলেই যাননি সুকন্যা। বরং তাঁর সাক্ষর নিতে স্কুলের রেজিস্টারের খাতা আসত জেলা সভাপতির বাড়িতে। দিনের পর দিন স্কুলে না গিয়েও বাড়িতে বসেই বেতন নিয়ে গিয়েছেন সুকন্যা। 

আরও পড়ুনআদালতে হাজিরা দিতে প্রস্তুত কেষ্ট-কন্যা, ভোররাতেই কলকাতার পথে রওনা হবেন সুকন্যা 


আইনজীবীদের একাংশের মতে সুকন্যার নিয়োগ সম্ভবত ২০১২ সালের টেট পরীক্ষার ভিত্তিতে হয়েছে এবং ২০১৪ সালের পরীক্ষার্থীদের মামলা চলতে, তাই হয়ত দুটি মামলাকে জুড়তে চাননি বিচারপতি। 

আরও পড়ুনটেট পাস না করেই চাকরি? হাইকোর্টে সশরীরে হাজিরা দিতে আসছেন অনুব্রত-কন্যা সুকন্যা

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios