এতদিন বাকধারা ছিল, 'মশা মারতে কামান দাগা'। কিন্তু কলকাতা পুরসভার উদ্য়োগে এবার মশা মারতে ড্রোন দাগার উপক্রম হল। পুরসভার দাবি, 'বিনাশ' নামের এই ড্রোন দিয়েই ডেঙ্গির বংশ ধ্বংস করবে পুরসভা। 

যেখানে মানুষ পৌঁছতে পারছে না, সেখানে পৌঁছে যাবে ড্রোন। জমা জলের ফটো তুলে পৌঁছে দেবে পুরসভায়। এমনকী প্রয়োজনে জমা জলের নমুনাও পরীক্ষারগারে নিয়ে আসবে ড্রোন। জমা জলের নমুনায় মশার লার্ভা পেলে শুরু হবে বিনাশ অভিযান। ড্রোনের মধ্যে মশার লার্ভা নিরোধক স্প্রে ভরে পাঠাবে পুরসভা। মশার আতুরঘর এরকম জায়গায় স্প্রে করবে খোদ ড্রোন। এমনই জানান কলকাতা পুরসভার ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ। 

সূত্রের খবর, ২০০ফুট উচ্চতা পর্যন্ত উড়তে পারবে এই বিনাশ ড্রোন। অর্থাৎ প্রায় কোনও আবাসনের কুড়ি তলার নাগাল পাওয়া ড্রোনের কাছে খোলামকুচি। ফলে পরিত্য়ক্ত বিল্ডিংয়ে সহজেই মশা মারার  স্প্রে করতে পারবে বিনাশ। যদিও পুরসভার  এই উদ্য়োগ নিয়ে কটাক্ষ করতে ছাড়ছেন না বিরোধীরা। বিরোধীদের মতে, রাজ্যে মহামারির আকার ধারণ করেছে ডেঙ্গু। একের পর এক মৃত্যুতেও চোখ খোলেনি রাজ্য সরকারের। এখন সব কিছুর থেকে চোখ ঘোরাতেই লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে কেবল আই ওয়াশ-এর পথে হাঁটছে সরকার।