কলকাতার একজন ক্যাব ড্রাইভারের গাওয়া হিন্দুস্তানীয় ধ্রুপদী বন্দিশ ইতিমধ্য়েই নেট দুনিয়ায় ভাইরাল। গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর, বৃন্দা দাশগুপ্ত নিজের বাড়ি থেকে কলকাতায় আলতামিরা আর্ট গ্যালারিতে একটি উবের ট্যাক্সি করে যাচ্ছিলেন। হঠাই তার কানে আসে ক্যাব চালকের মায়াবী কন্ঠ। তারপরেই ভিডিও করে সোশ্য়াল মিডিয়ায় পোস্ট করেন যাদবপুরের ওই ছাত্রী বৃন্দা দাশগুপ্ত। যাকে তিনি আরিয়ান সনি হিসাবে নামে উল্লেখ করেছেন। আর মুহূর্তে তা ছড়িয়ে পড়ে নেট দুনিয়ায়। তারপরেই প্রশংসা বার্তা আসতে থাকে একের পর এক। 

আরও পড়ুন, 'রাজীব কুমারকে বাঁচানোর উপহার, শাহকে শহিদ মিনারে মিটিংয়ের ছাড়পত্র মমতার'

সূত্রের খবর, গত মঙ্গলবার ওই যাত্রী তথা  যাদবপুরের ছাত্রী ফেসবুকে লিখেছিলেন, ' ক্যাব চালক আমাকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, আমি সংগীতে আগ্রহী কিনা।   হাসিমুখে তাঁর প্রশ্নের সঙ্গে সম্মতি জানাতেই  ক্যাব চালক শুরু করেন গাওয়া, তার মায়াবী কন্ঠে হিন্দুস্তানীয় ধ্রুপদী বন্দিশ। কোথা থেকে তালিম পেয়েছেন প্রশ্নের উত্তরে চালক জানান, তিনি সংগীতের 'বিক্ষিপ্ত প্রশিক্ষণ' পেয়েছিলেন। আর এরপরেই বৃন্দা তার ক্য়াব চালকের গান ভিডিও করে সোশ্য়াল মিডিয়ায় পোস্ট করেন।

আরও পড়ুন, হিন্দু হস্টেল ইস্যু নিয়ে প্রেসিডেন্সির পড়ুয়াদের টানা বিক্ষোভ, অবরুদ্ধ কলেজ স্ট্রিট

৪ মার্চ বুধবার থেকে আজ অবধি ইতিমধ্য়েই ওই ভিডিও ভাইরাল। ৫৪০০০ হাজারেরও বেশি মানুষ ওই ক্যাব ড্রাইভারের হিন্দুস্তানীয় ধ্রুপদী বন্দিশ শুনেছেন। শেয়ারেরও বন্য়া বয়ে গেছে। ইতিমধ্য়েই শেয়ারের সংখ্য়া প্রায় ১২০০ ছাড়িয়েছে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য়, এই ঘটনা প্রকাশ্য়ে আসায় রাণু মন্ডলের কথাও মনে করাচ্ছে সাধারণ মানুষকে। শহরের বিভিন্ন জায়গার লুপ্ত বিরল প্রতিভা প্রকাশ্য়ে আসছে শহরবাসীর হাত ধরেই।

আরও পড়ুন, আপাতত স্বস্তিতে পোল্যান্ডের ছাত্র কামিল, দেশে থাকার অনুমতি ১৮ মার্চ