বিহারে গিয়ে রহস্যজনক ভাবে হারিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। কলকাতা পুলিশের তৎপরতায় নাটকীয় ভাবে উদ্ধার পেলেন নিরঞ্জনকুমার ওয়ারসি।  আপাতত সুস্থই রয়েছেন তিনি।

গত ৪ মে তিলজলার বাসিন্দা আফ্রিন ওয়ারসি তিলজলা থানায় গিয়ে তাঁর স্বামী নিখোঁজ এই মর্মে অভিযোগ দায়ের করেন। আমন ওয়ারশি ওরফে ওরফে নিরঞ্জন কুমার পাটনার বাসিন্দা। তাঁর একটি মুদিখানার দোকান রয়েছে পাটনায়। দিন কয়েক আগেই তিনি পাটনায় গিয়েছিলেন পৈত্রিক সম্পত্তি ভাগাভাগির জন‌্যে। তারপরেই বেপাত্তা হয়ে যান তিনি।

আফ্রিই পুলিশকে  জানান তাঁর কাছ থেকে আশি লক্ষ টাকা চাইছে জনৈক রাকেশ ও সুশান্ত। পুলিশই তাঁকে পরামর্শ দেয় কথা চালিয়ে যেত। মধ্যস্থতার পরে কথা হয় প্রথম কিস্তিতে ছয় লক্ষ টাকা দেওয়া হবে। তখনই আসরে নামে পুলিশ। পাঁচদিনে প্রচেষ্টায় পাটনা পুলিশের বিশাল বাহিনীর সাহায়্য নিয়ে জুমাই বিহার থেকে আমন ওয়ারশিকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। ধরা পড়ে এক অপরাধীও। তার নাম রঞ্জিত।
 সেই সূত্র ধরেই পুলিশ জানতে পারে মূল দুই পাণ্ডা কলকাতায় গা ঢাকা দিয়েছে। তাঁদের খুঁজতেই কলকাতায় আসছে পুলিশ। অন্য দিকে স্বস্তির আবহাওয়া নিরঞ্জনের পরিবারে।