সিএএ বিরোধী মিছিলে অংশ নেওয়ায় এবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের এক পোলিশ ছাত্রকে ভারত ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। এরপরেই পোল্যান্ডের ওই ছাত্র কামিল শেদচিন্সকি কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন। আজ বুধবার পোল্যান্ডের ছাত্র কামিল সেদচিন্সকির মামলার শুনানি হয়। বিচারপতি সব্যসাচী ভট্টাচার্যের এজলাসে ওই ছাত্রের আইনজীবী কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্ত নিয়ে একাধিক মত পেশ করেন।

আরও পড়ুন, বাড়ির বৈদ্যুতিন বর্জ্য নিয়ে যাবে কলকাতা পৌরসভা, চালু হেল্পলাইন নম্বর


সূত্রের খবর, বুধবার বিচারপতি সব্যসাচী ভট্টাচার্যের এজলাসে  পোল্যান্ডের ছাত্র কামিল শেদচিন্সকির আইনজীবীর বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় সরকার তাকে দেশ ছাড়ার যে নোটিশ দিয়েছে তা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং  একপেশে সিদ্ধান্ত। কোর্ট যেন সরকারের ওই নোটিশ খারিজ করে দেয়৷ বিচারপতি ওই ছাত্রের মামলার শুনানি প্রসঙ্গে মন্তব্য করেন, ছাত্রটি মেধাবী। আগামীকাল কেন্দ্রীয় সরকার বক্তব্য জানাবে। 

আরও পড়ুন, আম্রমুকুল আর পলাশ জানান দিচ্ছে বসন্তের, দোল উৎসবে মাতবে এবার শহর ও শান্তিনিকেতন

 যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের তুলনামূলক সাহিত্য বিভাগের ছাত্র কামিল শেদচিনস্কিকে  কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের আওতাধীন ফরেন রিজিওনাল রেজিস্ট্রেশন অফিস থেকে এমন নির্দেশ দেওয়া হয়। তুলনামূলক সাহিত্য বিভাগের ওই ছাত্র সম্প্রতি সিএএ বিরোধী মিছিলে অংশ নিয়েছিল, আর তার জেরেই এই সিদ্ধান্ত। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে কামিলকে ভারত ছাড়তে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সূত্রের খবর, কিছুদিন আগেই এ ব্যাপারে ওই ছাত্রকে নোটিস দেওয়া হয়েছে। তাঁকে ফরেন রিজিওনাল রেজিস্ট্রেশনের কলকাতা অফিসে দেখা করতে বলা হয়েছিল। গত ২২ ফেব্রুয়ারি দেখা করেন ওই ছাত্র। সেখান থেকেই তাঁকে ভারত ছাড়ার নোটিশ দেওয়া হয়েছে। এদিকে এবছর তাঁর তৃতীয় সেমেস্টার রয়েছে। এর আগে ওই ছাত্র বিশ্বভারতীতে বাংলা নিয়ে পড়াশোনা করেছেন। আগামীকাল দুপুর ২ টোয়,পোল্যান্ডের ছাত্র কামিল শেদচিন্সকির মামলার পরবর্তী শুনানি। 

আরও পড়ুন, প্রচুর জলীয়বাষ্প ঢুকছে রাজ্যে, আজ বিকেলে ফের বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি