শুভজিৎ পুততুণ্ড, বারাসত- বিয়ের স্বপ্ন পূরণ হল না। সব স্বপ্ন কেড়ে নিল একটি মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। করোনা আবহ পেরিয়ে আগামী বছর বিয়ের স্বপ্ন দেখেছিল প্রেমিক যুগল। লকডাউনে কলকাতায় ফিরে প্রতি সপ্তাহে দুজনে ঘুরতে বেরোতেন। আর সেটাই কাল হয়ে দাঁড়াল প্রেমিক যুগলের কাছে। কিন্তু প্রেমিক যুগলের স্কুটির পিছনে ধাক্কা মারে। আশঙ্কজনক অবস্থায় তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে তাঁদের মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

আরও পড়ুন-রাজনৈতিক সংঘর্ষে উত্তপ্ত ময়না, অভিযুক্তদের খুঁজতে গিয়ে উদ্ধার প্রচুর বোমা

মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে নিউটাউনে বিশ্ব বাংলা গেটের নীচে। জানাগেছে, সল্টলেক থেকে চিনাপার্কের দিকে যাচ্ছিলেন প্রেমিক যুগল। সেই সময় পিছন থেকে আসা একটি লরি স্কুটির পিছনে ধাক্কা মারে। সঙ্গে সঙ্গে ছিটকে পড়ে যান তাঁরা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁদের বিধাননগর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু তাঁদের মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।  পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত প্রেমিক যুবকের নাম দ্বীপায়ন মুখোপাধ্যায়। তথ্য়-প্রযুক্তি সংস্থার কর্মী এবং বরাহনগর স্পোর্টিং ক্লাবের ক্রিকেট দলের ক্যাপ্টেন। অন্যদিকে মৃত প্রেমিকা মেধা পাল। তিনিও তথ্য-প্রযুক্তি সংস্থার কর্মী, ব্যাঙ্গালোরে কর্মরত ছিলেন। লকডাউনের সময় বাড়ি ফিরেছিলেন তিনি। 

আরও পড়ুন-'দেশের কৃষিক্ষেত্র-কৃষক-গ্রাম আত্মনির্ভর ভারতের হাতিয়ার', মন কি বাতে কৃষি বিলের পক্ষে সওয়াল প্রধানমন্ত্রী

পরিবার সূ্ত্রে জানাগেছে, করোনা আবহ কেটে গেলে আগামী বছর বিয়ের কথা ছিল তাঁদের। প্রতি সপ্তাহে স্কুটিতে করে ঘুরতে বেরোতেন দ্বীপায়ন-মেধা। রবিবার লরির ধাক্কায় মৃত্যু হয় তাঁদের। দুর্ঘটনার পরই ঘাতক লরিটি পালিয়ে যায়। ওই লরির চালকের খোঁজ শুরু করেছে নিউটাউন থানার পুলিশ।