একুশের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষাতেও থাবা বসাল করোনাভাইরাস। করনো সংক্রমণের আশঙ্কায় এবছর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের টেস্ট পরীক্ষা নেবে না রাজ্য় সরকার। ছাত্রছাত্রীদের করোনা সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য শিক্ষা দফতর। টেস্ট পরীক্ষা না হওয়ার কথা ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়।

আরও পড়ুন-শতাব্দী প্রাচীন হাওড়ার হাজার হাত কালীর পুজো, শিবপুরের এই কালী মন্দিরে পশু বলি প্রথা নেই

এবছর, মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিকের টেস্ট পরীক্ষা হবে না বলে ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নবান্নের সভাঘর থেকে সাংবাদিক সম্মেলন করে রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ''করোনা ভাইরাসের সংক্রমনের কথা মাথায় রেখে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। প্রত্যেক পরীক্ষার্থীকে উর্ত্তীর্ণ ঘোষণা করা হয়েছে''। মুখ্যমন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, ''টেস্ট পরীক্ষা না নেওয়া হলেও মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিকের তারিখ পরিবর্তন হবে কিনা সে বিষয়ে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে রাজ্য শিক্ষা দপ্তর''। 

আরও পড়ুন-সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে রাজ্যে চাকা গড়াল লোকাল ট্রেন, সাড়ে ৭ মাস পর পরিষেবা পেয়ে খুশি যাত্রীরা

একই সঙ্গে এদিন তিনি আরও জানান, ''খুব দ্রুত রাজ্যে সাড়ে ১৬ হাজার শূন্য পদে প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ করা হবে''। নবান্ন থেকে রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে এই কথা ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, ''করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এখনো আছে। তাই এই পরিস্থিতির মধ্যে রাজ্যে টেট উত্তীর্ণদের নিয়োগ প্রক্রিয়া ব্যাহত হয়েছে। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া শেষে নিয়োগ করা হবে''। ২০ লক্ষ টেট উত্তীর্ণকেই ইন্টারভিউ এর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে নবান্নে জানান মমতা। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ''রাজ্যে নতুন করে টেট পরীক্ষা দেওয়ার জন্য আরো আড়াই লক্ষ আবেদন জমা পড়েছে। অনলাইনে এই পরীক্ষা নেওয়ার জন্য শিক্ষা দপ্তরকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ''।