দুর্গাপুজো নিয়ে  সোশ্য়াল মিডিয়ায় ভুয়ো খবরকে কেন্দ্র করে পারদ চড়ল নবান্নে। নিজেই পুলিশ দিবসে যা নিয়ে মুখ খুললেন মুখ্য়মন্ত্রী। নাম না করে এই ভুয়ো খবর ছড়ানোর  জন্য় বিজেপিকেই কাঠগড়ায় তুললেন মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। কী বললেন মুখ্যমন্ত্রী ? 

'রাজ্য়ে দুর্গাপুজোয় নাইট কারফিউ', হোওয়াটস অ্যাপ ছড়ালেই 'হাজতবাস'

এদিন বিজেপির নাম না করে মমতা বলেন, এ কাজ কে করেছে সবাই জানে। নাম আর বলব না। যারা দুর্গাপুজো করেনি জীবনে তারা পুজো নিয়ে ফেক নিউজ ছড়াচ্ছে। যারা ভুয়ো মেসেজ ছড়িয়েছে তাদের কান ধরে ওঠবোস করাও। সরকার মিটিংই করেনি। পুজো নিয়ে সরকার এ ধরনের কোনও সিদ্ধান্ত নিয়েছে এটা প্রমাণ করতে পারলে আমি সবার সামনে ওঠবোস করব।  

এক লাখ দেশবাসীর সুরক্ষায় ১৩৮ জন পুলিশ, কঙ্গনাকে কেন ওয়াই প্লাস নিরাপত্তা- প্রশ্ন মহুয়ার

করোনা আবহে দুর্গাপুজো নিয়ে এমনিতেই আশঙ্কার অন্ত নেই। নতুন করে মুখ্যমন্ত্রীর চিন্তা বাড়াল দুর্গা পুজো নিয়ে হোওয়াটস অ্য়াপ মেসেজ। যা দেখেই রাগে অগ্নিশর্মা  হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। সোশ্য়াল মিডিয়ায় দুর্গা পুজো নিয়ে ভুয়ো খবর রুখতে পুলিশকে কড়া ব্যবস্থা নিতে বলেছেন মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। 

সম্প্রতি হোওয়াটস অ্য়াপে ঘুরে বেড়াচ্ছে দুর্গাপুজো নিয়ে কিছু মেসেজ। যেখানে বলা হয়েছে, এ বছর রাজ্য়ে দুর্গা পুজোয় রাত জেগে আর ঠাকুর দেখা যাবে না। কারণ রাজ্য় সরকারের তরফে বিকেল পাঁচটার পর নাইট করাফিউ জারি  করা হবে। পঞ্চমী  থেকে একাদশী পর্যন্ত বিকেল থেকে সকাল চারটে পর্যন্ত জারি থাকবে এই কারফিউ। তার মানে পুজো হলেও উৎসবে ঘরেই কাটাতে হবে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের সৌজন্যে।

'দিদির ঘরে' করোনার থাবা,সংক্রমণে আক্রান্ত মন্ত্রী থেকে ডেপুটি মেয়র.

এখানেই শেষ নয়। করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে মণ্ডপে পাঁচজনের বেশি ঢোকা যাবে না বলে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। অঞ্জলিতে থাকছে নিষেধাজ্ঞা। ফুলের বদলে করজোড়ে দিতে হবে অঞ্জলি। মণ্ডপে ঢোকার ক্ষেত্রে করোনার উপসর্গ  দেখা দিলে করোনা টেস্ট দিতে হবে সঙ্গে সঙ্গে। যদিও হোওয়াটস অ্যাপের এই মেসেজ ইতিমধ্য়েই ভুয়ো বলে দাবি  করেছে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ। কেউ এই ধরনের মেসেজ ছড়ালে তার বিরুদ্ধেও আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে সতর্ক করেছে পুলিশ । ওয়েস্ট বেঙ্গল পুলিশের তরফে ইতিমধ্য়েই টুইটারে  জারি করা হয়েছে এই সতর্কীকরণ।  

"