রাম মন্দিরের ভূমি পুজো উপলক্ষ্য়ে বাড়িতে ষজ্ঞ করলেন বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। মন্দিরে পুজো দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিলেন । তিনি। অর্জুন সিং বলেন, পাকিস্তানের সঙ্গে যুক্ত হয়ে রাজ্য়কে পশ্চিম বাংলাদেশ বানানোর চক্রান্ত করছেন মুখ্যমন্ত্রী। এতবার লকডাউন-এর দিন পরিবর্তন করা হয়েছে। আজকের দিনটাও পরিবর্তন করা যেত, উনি একটা বিশেষ সম্প্রদায়কে খুশি করার চেষ্টা করছেন।

এই বলেই থেমে থাকেননি অর্জুন সিং। তিনি বলেন, মানুষের যখন রাজনৈতিক জীবনের শেষ হয়ে যায়, তখন তারা উল্টো-পাল্টা কাজ করেন। রামভক্তদের মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায় ভয় পাচ্ছেন, তাই এরকম একটা দিনে রাজ্য়ে লকডাউন জারি রাখলেন। উনি বুঝতে পারলেন না, পুলিশ দিয়ে নিয়ম করে কি মানুষের মনের ইচ্ছা দমন করে রাখা যায়। এক সময় মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায় সিপিএমের মৃত্যুঘণ্টা বাজিয়ে ছিলেন। আজ ৫ অগস্ট রাম মন্দিরের ভূমি পুজোয় লকডাউন করে নিজের রাজনৈতিক জীবনের মৃত্যুঘণ্টা বাজিয়ে দিলেন মমতা।

অর্জুন সিং বলেন, একটা ৫০০ বছরের দেশের ইতিহাস। আজ সারা দেশ তার পুনর্নির্মাণের সাক্ষী থাকতে চলেছে। সেখানে রাজ্য়ে লকডাউন ঘোষণা একদমই উচিত হয়নি। ইতিহাসের দিকে তাকালে বুঝতে পারবেন, যারা যারা রাম মন্দির নির্মাণের বিরোধিতা করেছেন তারা সকলে হারিয়ে গেছেন। একে এক বিহারের লালুপ্রসাদ যাদব, উত্তরপ্রদেশে  সিংকে এখন খুঁজেই পাওয়া যায় না। মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়েরও একই অবস্থা হবে। আজ থেকেই তার খারাপ সময়ের শুরু হয়ে গেল।