আগেই বলেছিলেন যে গরু দুধ দেয় তার লাথি শ্রেয়। বলেছিলেন তোষণ করি বেশ করি। আমি ইফতারে যাব। কথা রাখলেন তিনি।

অবশেষে ইফতারে গেলেন মমতা। কলকাতা পুরসভা আয়োজিত ইফতারে মমতার সঙ্গেই দেখা গেল সুব্রত মুখোপাধ্যায়, সৌগত রায়দের।|

কলকাতা পুরসভার তরফে এদিন ইফতারের আয়োজন করা হয় পার্কসার্কাস ময়দানে। সেখানেই উপস্থিত রইলেন মমতা।

এদিন দিনভর মমতা মিটিং সারেন। বিধায়কদের নিয়ে নবান্নে বৈঠকে মমতা বলেন, 'জয় শ্রীরাম স্লোগান বিকৃতভাবে ব্যবহার করছে বিজেপি। আমার বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করা হচ্ছে। আমি তার যা ব্যাখ্যা দেওয়ার দিয়ে দিয়েছি। 
তারকেশ্বরে জাতীয় পতাকা সরিয়ে দিয়ে বিজেপি-র পতাকা লাগানো হচ্ছে, বিশ্ব বাংলার লোগো খুলে বিজেপি-র পতাকা লাগাচ্ছে। আইন অনুযায়ী যা ব্যবস্থা নেওয়ার আমরা নেব।'

প্রসঙ্গত লোকসভা ভোটে তৃণমূলের খারাপ ফলের মধ্যেও মুখ্যমন্ত্রীর মান রেখেছে মুসলমান ভোট ব্যাঙ্ক । রাজনৈতিক মহল মনে করছে আগামী বিধানসভায় কোনও মতেই সেই রাশ আলগা হতে দেবেন না মমতা। সেই বার্তা দিতেই ওই ধরনের মন্তব্য করেছিলেন তিনি।  এদিন তাঁর রুটম্যপও  প্রমাণ করল নিজের পুরনো অবস্থান থেকে নড়ছেন না তিনি ।‌‌

তবে এই উৎসব অনুষ্ঠানের সঙ্গে সংখ্যালঘুর প্রকৃত উন্নয়নে সম্পর্ক ঠিক কী, তাই নিয়ে প্রশ্ন থাকছেই। 

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলের নতুন সাংসদ নুসরত জাহানও সম্প্রতি ইফতার করেছেন নিজের কেন্দ্রে। সোমবার বসিরহাটের ত্রিমোহনীতে ইফতারের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তিনি।