বিজেপির নবান্ন অভিযান ঘিরে তুলকালাম চেহাড়া নিল হাওড়া। একাধিকবার পুলিশের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধে জড়াল বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। কোথাও কোথাও কাঁদানে গ্যাস ও ব্যাপক লাঠিচার্জ করেছে পুলিশ। রাজ্য়ে বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপির এই অভিযান কতটা সফল জানতে সরাসরি পুলিশকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করলেন মুখ্যমন্ত্রী।  ঝাড়গ্রাম থেকে ফিরেই রাজ্য পুলিশের ডিজি-র সঙ্গে বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জানা গিয়েছে, বিজেপির নবান্ন অভিযানের পরিস্থিতি জানতে ভবানীভবনেও গিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঝাড়গ্রাম সফর শেষে কলকাতায় ফেরেন মুখ্যমন্ত্রী। হাওড়ার ডুমুরজলায় একলব্য স্কুলমাঠের অস্থায়ী হেলিপ্যাডে নামার পরই সোজা চলে যান নবান্নে। সেখান থেকেই খবর নেওয়া শুরু করেন হাওড়ার পরিস্থিতির। 

বিজেপির নবান্ন অভিযানকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে একেবারে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল কোনা এক্সপ্রেসওয়ে ও হাওড়া ময়দান চত্বর । গতকাল রাত থেকেই বিভিন্ন জেলা থেকে বিজেপি কর্মী সমর্থকরা আসতে শুরু করে হাওড়াতে । 

মূলত দু'টি মিছিল করা হয় বিজিবির পক্ষ থেকে । একটি সাঁতরাগাছি বাসস্ট্যান্ড থেকে কোনা এক্সপ্রেসওয়ে ধরে যাবে নবান্নে , অপরটি হাওড়া ময়দান হয়ে মল্লিক ফটক, জিটি রোড ধরে যাবে নবান্নে । পুলিশের তরফ থেকে দুটি রাস্তায় সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয় । দুপুর বারোটার সময় দুই প্রান্ত থেকে দুটি মিছিল নবান্নের দিকে এগোতে থাকলে দুই প্রান্তে আটকানো হয় তাদের । 

মিছিল ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশের পক্ষ থেকে আন্দোলনকারীদের লক্ষ্য করে চালানো হয় জলকামান। ফাটানো হয় একাধিক টিয়ার গ্যাসের শেল । তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ-এর পক্ষ থেকে লাঠিচার্জ করা হয় । আন্দোলনকারীদের দিকে থেকেও পুলিশকে লক্ষ্য করে উড়ে আসতে থাকে ইট ও কাচের বোতল । সাইকেলের টায়ার জ্বালিয়ে ছোড়া হয় পুলিশকে লক্ষ্য করে । ভাঙা হয় পুলিশ কিওস্ক, বাস স্ট্যান্ড এমনকী বেসরকারি বিজ্ঞাপনের হোর্ডিও ।