লকডাউনের জেরে রোজগারের পথ বন্ধ। বাবার চিকিৎসার খরচ জোগাড় করতে না পেরে শেষপর্যন্ত আত্মহত্যা করলেন এক ব্যক্তি। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে বেহালায়। এলাকায় শোকের ছায়া।

আরও পড়ুন: সুশান্তের মৃত্যুর পর সজাগ সিপি, হতাশায় ভুগলে ১০০ ডায়ালে ফোন করার পরামর্শ

মৃতের নাম মৃন্ময় দাস। বাড়ি, বেহালার পর্ণশ্রীর পরুই দাস পাড়া রোডে। স্ত্রী, ছেলে ও বৃদ্ধ বাবাকে সংসার। গত বেশ কয়েক বছর ধরে অসুস্থ ওই বৃদ্ধ। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, মুরগির মাংসের ব্যবসা করতেন মৃন্ময়। কিন্তু লকডাউনের কারণে ইদানিং ব্যবসা একেবারেই ভালো চলছিল না। অনেক দেনাও হয়েছিল বাজারে। কিন্তু তাতে আরও পরিস্থিতি সামলানো যাচ্ছিল না। যতদিন যাচ্ছিল, বাবার চিকিৎসার খরচও বাড়ছিল। টাকা জোগাড় করতে গিয়ে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছিল ওই ব্যবসায়ী। ভেবেছিলেন, পৈতৃক জমি বিক্রি করে দেবেন। কিন্তু এক আত্মীয়ের ষড়যন্ত্রে সেই জমিও হাতছাড়া হয়ে যায় বলে অভিযোগ। 

আরও পড়ুন: করোনা যুদ্ধে লড়াই করতে কলকাতা পুলিশকে সাহায্য, সুরক্ষা সরঞ্জাম দান করল কলতাকার এই স্বর্ণ ব্যবসায়ী সংস্থা

কীভাবে সুস্থ করে তুলবেন বাবা! মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন মৃন্ময়। সোমবার নিজের বাড়িতেই আত্মহত্যা করেন তিনি। ঘটনাটি জানাজানি হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পর্ণশ্রী থানার পুলিশ। মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। তদন্তে নেমেছে পুলিশ।