বর্ষশেষের রাতে বড়সড় চুরি মায়ের মন্দিরে। নতুন বছরের প্রথম দিনে মনখারাপ এলাকার বাসিন্দদের । ৪০০ বছর পুরনো বরিশা শ্মশান কালীতলা মন্দিরের ভিতরে ঢুকে দেখে বিগ্রহের চোখ উপড়ে নেওয়া হয়েছে।সোনার অলংকার  চুরি করে নিয়েছে চোরেরা। খবর পেয়েই তদন্তে ঠাকুরপুকুর থানার পুলিশ।


বছরের প্রথম দিনে এলাকার মানুষ ঘুম থেকে উঠেই দেখে তাঁদের এলাকার ৪০০ বছর পুরনো বরিশা শ্মশান কালীতলা মন্দিরের দরজা ভাঙা। ভিতরে ঢুকে দেখে বিগ্রহের চোখ উপড়ে নেওয়া হয়েছে। মায়ের আরও বেশ কিছু সোনার অলংকার  চুরি করে নিয়েছে চোরেরা। সব মিলিয়ে লক্ষ্যধিক টাকার অলংকার চুরি গেছে। বছরের প্রথম দিনে  এমন দৃশ্য দেখে স্থানীয় লোকেরা খুবই হতাশ। তাদের বক্তব্য এই মন্দিরের উপর তাদের আস্থা, ভরসা, নিষ্ঠা অনেকটাই বেশি। কিন্তু সেখানে এই ধরণের ন্যাক্কারজনক ঘটনা কারা ঘটালো  তারা বুঝে উঠতে পারছেনা। 

ইতিমধ্যেই ঠাকুরপুকুর থানা খবর দেওয়া হয়েছে। কী করে এত বড় চুরি হল, মন্দির এলাকার কেউ এই বিষয়ে কোনও হদিশ দিতে পারে কিনা, সব খতিয়ে দেখতে তদন্তে নেমেছে ঠাকুরপুকুর থানার পুলিশ। তবে এহেন ঘটনাই জ্বলজ্যান্ত প্রমাণ যে, অপরাধ এটুকুও কমেনি শহর কলকাতায়।