আবারও কিশোরী ধর্ষণের নারকীয় ঘটনা ঘটল শহরের বুকে। বছর তেরোর কিশোরীকে লাগাতার ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত তাঁর পাড়ার কাকু। ঘটনাটি ঘটেছে হরিদেবপুর থানা এলাকায়।  অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে তদন্তে নেমেছে হরিদেবপুর থানার পুলিশ।

আরও পড়ুন, ২ স্ত্রীর সঙ্গে লাইভ স্ট্রীমিং চলাকালীন সঙ্গম, পুলিশের জালে গুণধর যুবক

 

কিশোরী আচমকা অসুস্থ হয়ে পড়লে ঘটনা প্রকাশ্য়ে আসে

সূত্রের খবর, হরিদেবপুর থানার ১৪২ নম্বর ওয়ার্ডে  ওই কিশোরীকে লাগাতার ধর্ষন করছিল পাড়ার এক কাকু বলে অভিযোগ। অভিযুক্তের নাম মুকেশ, পেশায় সে এই শহরেরই এক ট্য়াক্সি ড্রাইভার। অভিযোগ, দিনের পর দিন সে ধর্ষণ করত ওই কিশোরীকে। এমনকি কিশোরীকে হুমকি দিতো কাউকে বলে জানে মেরে দেবে। সেই ভয়তে কাউকে কিছু বলতো না কিশোরী। মঙ্গলবার আচমকাই অসুস্থ হয়ে পড়লে পরিবারের লোক জনকে সে সব কথা বলে। এরপরেই হরিদেবপুর থানায় পরিবারের লোক অভিযোগ করলে সেই অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে।

আরও পড়ুন, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বাংলার মেয়ে পাচার, গুজরাট থেকে নির্যাতিতাকে উদ্বার করল CID-AHTU-IJM

 

 কী করে এমন ঘটনা ঘটল 

এই নারকীয় ঘটনার পর ইতিমধ্য়েই তদন্তে নেমেছে হরিদেবপুর থানার পুলিশ। দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ চলছে অভিযুক্তকে ঘিরে।  কী কারণে এমন ঘটনা ঘটাল এবং  পেশায় ট্য়াক্সি ড্রাইভারের মানসিকভাবে স্বাভাবিক কিনা সেটার জানার চেষ্টা চলবে। কারণ এতদিন ধরে ঘটনা প্রকাশ্য়ে আসেনি, আর তারই মাঝে না জানি ওই ড্রাইভার কত মহিলা যাত্রীকেই হয়তো সওয়ারি করেছে। সেদিক থেকেও নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।