কলকাতা বিমান বন্দরে, মুম্বই থেকে আগত সোনা পাচারকারী দম্পতিকে হাতে-নাতে ধড়ল পুলিশ। তাদের থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ২৪ টি সোনার বার। যার বর্তমান মূল্য় প্রায় সাড়ে এগারো লক্ষ টাকা। তাদের থেকে মোট সোনার খোঁজ লাগাতেই রীতিমত পরিশ্রম করতে হল কাস্টমস অফিসারদের। 
 

আরও পড়ুন, পশ্মিমী ঝঞ্ঝা ও নিম্নচাপে আটকে শীত, রাজ্যে ৪৮ ঘণ্টা পর নামবে পারদ


মুম্বই-র থানের বাসিন্দা, মধ্য় তিরিশের রমাচন্দ এবং স্নেহা কুকরেজা ব্য়ঙ্কক থেকে এসেছিলেন কলকাতা বিমান বন্দরে। আর সেখানেই ওই দম্পতির সোনা চোরারের পর্দা ফাঁস করে সিআইএসএফ। বিমান বন্দর কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গিয়েছে যে,  স্বাভাবিকের থেকে যেন অনেকটাই উঁচু। কর্তৃপক্ষের তরফে ওই ব্য়াক্তিকে চেক করা হয়।  তারপরেই রমাচন্দের বেল্টের বাকলস্ থেকে বেরিয়ে আসে সোনার বার।  এছাড়াও ওই দম্পতির ব্য়াগও  পোশাকের ভিতর থেকেও আরও অনেক পরিমান সোনা উদ্ধার করা হয়। পাওয়া গিয়েছে বড় ডায়ালের সোনার ঘড়ি এবং দুটি এম সিল টিউব।

আরও পড়ুন, শ্রমিক আন্দোলনের নব পর্যায়, ৮ জানুয়ারি ধর্মঘটের ডাক দিল শ্রমিক সংগঠন

 
বিমান বন্দর কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গিয়েছে যে, ওই দম্পতির থেকে উদ্ধার করা মোট সোনার পরিমান ৩৩৫ গ্রাম।  ওই দম্পতির থেকে সমস্ত সোনা খুঁজে পেতে প্রায় তিনঘন্টার কাছাকাছি সময় লেগেছে। এবং ওই দম্পতির কাছে এত পরিমান সোনা কেনার কোনও অফিশিয়াল কাগজ-পত্র ছিল না। কাস্টমস্ অফিসাররা, যার ওই দম্পতির থেকে পাওয়া সমস্ত সোনা বাজেয়াপ্ত করেছে।