ফের মুসলিম ধর্মগুরুর রোষের মুখে তৃণমূল সাংসদ তথা অভিনেত্রী নুসরত জাহান। স্পষ্ট বক্তা নুসরতকে অন্য ধর্মে বিয়ে থেকে শুরু হিন্দু রীতিনীতিকে আপন করে নেওয়াকে কেন্দ্র করে বারবারই তোপের মুখে পড়তে হয়েছে। তবে সে সব কিছুকে পাত্তা না দিয়ে নুসরত নিজের কাজের ওপরই বিশ্বাস রেখেছেন বরাবর। আর এবারও তার ব্যতিক্রম হল না। 

বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপুজোয় হাজির থাকাকে কেন্দ্র করে ফের বিতর্কের শিরোনামে নুসরত। অষ্টমীতে নুসরত এবং তার স্বামী নিখিল জৈনকে দেখা যায় কলকাতার একটি জনপ্রিয় পুজো মণ্ডপে ঢাক বাজাতে। তবে শুধু একটিই নয়, এমন একাধিক পুজো মণ্ডপে উপস্থিত হয়েছেন নুসরত। আর তার এই উপস্থিতিতেই ক্ষোভ প্রকাশ করছে মুসলিম ধর্মগুরুরা।  

কোমড়ে শাড়ি গুঁজে ঢাক বাজালেন নুসরত, অষ্টমীর লুকে বাজিমাত করলেন নিখিল-নুসরত

একটি বৈদ্যুতিন সংবাদ মাধ্যমে উত্তরপ্রদেশের দারুল-উলুম দেওবন্দের এক মুসলিম ধর্মগুরু তোপ দেগে বলেন, মুসলিমরা আল্লাহ ছাড়া অন্য কোনও ভগবানের আরাধনা করবে এই অনুমতি ইসলাম দেয় না। তার মতে এটি 'হারাম'। এবং সেই ধর্মগুরু এও জানান যে, এখনই নাম পরিবর্তন করে নেওয়া উচিত নুসরতের। 

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের জুন মাসে ভারতীয় ব্যবসায়ী নিখিল জৈনকে বিয়ে করেন অভিনেত্রী নুসরত। ভিন ধর্মে বিয়ে করায় তোপের মুখে পড়তে হয় তাঁকে। এরপরে তিনি সংসদে সাংসদ হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের আগে শপথ নিতে গিয়ে যখন শাঁখা-সিঁদুর পরে গিয়েছিলেন, তখনও তাঁকে সামলোচনার সম্মুখীন হতে হয়। তবে বারবার বিতর্কের মুখে পড়েও তৃণমূল সাংসদ-অভিনেত্রী কিন্তু শান্তির বার্তাই তুলে ধরেছেন। এবং স্পষ্ট জানিয়েছেন সব ধর্মের উৎসব উদযাপনে তিনি বিশ্বাসী। 

দুর্গা মণ্ডপে আযান কেন, ৩৩ পল্লীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের

রবিবার অষ্টমীর দিন কলকাতার একটি পুজো প্যান্ডেলে তাঁকে দেখা যায় নিখিলের সঙ্গে। লাল শাড়িতে সেদিন দেখা দেন তিনি। সঙ্গে সোনার গয়না। অঞ্জলির পর ঢাক বাজাতে দেখা যায় তাকে। আর তারপর থেকেই ফের একবার বিতর্কের ঝড়।