দুর্যোগ সরতেই বৃহস্পতিবার কলকাতা হাইকোর্টে হবে নারদ মামলার শুনানি। উল্লেখ্য, ১৭ মে সোমবার নারদকাণ্ডে পশ্চিমবঙ্গের ৪ জন প্রাক্তন এবং বর্তমান মন্ত্রীকে গ্রেফতার করেছিল সিবিআই। এদিকে মামলা চলাকালীন যশ ঘূর্ণিঝড়ের কারণে ২৬ এবং ২৭ মে যাবতীয় কাজকর্ম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট। সেই নির্দেশ বদল হয়েছে শেষ অবধি বুধবার রাতে। 

আরও পড়ুন, গভীর নিম্নচাপে পরিণত যশ, কলকাতা-গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে প্রবল বৃষ্টির পূর্বাভাস 

 

 


আদলতের তরফে বিজ্ঞপ্তি করে জানানো হয়েছে, বৃহস্পতিবার বেলা ১১ নাগাদ বৃহত্তর বেঞ্চে হতে চলেছে নারদ মামলার শুনানি। মঙ্গলবার আদালতের তরফে জানানো হয়েছিল যে, ঘূর্ণিঝড়ের কারণে মামলার শুনানি সম্ভব নয়। তবে এবার গূর্ণিঝড়ের তেমন কোনও প্রভাব পড়েনি কলকাতায়। আর তাই আগের নির্দেশ বদল করল কলকাতা হাইকোর্ট। উল্লেখ্য, শেষদিনের শুনানিতে চার নেতার গ্রেফতারি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিচারপতি ইন্দ্রপ্রসন্ন মুখোপাধ্যায় এবং বিচারপতি সৌমেন সেন। তাঁরা জানতে চান, গত সাত বছর ধরে এই মামলা চললেও কেন অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়নি। হঠাৎ চার্জশিট পেশের দিনই কেন তাঁদের গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁর সঠিক জবাব দিতে পারেনি কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।  কোন বিষয়গুলিতে মামলা শুনানি চলবে সেবিষয়ে সেদিনই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বিচারপতিরা।

আরও পড়ুন, 'মৃতের পরিবার পাবে আর্থিক সাহায্য', ঘূর্ণিঝড়ে কৃষিজমি-বসত বাড়ি নিয়েও বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর 

 


প্রসঙ্গত,  নারদকাণ্ড কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। তবে শেষ অবধি সুপ্রিম কোর্টে আগাম আবেদন করেও কার্যত লাভ হয়নি কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার।   নারদ মামলায় সুপ্রিম কোর্টে সিবিআই-র আর্জি খারিজ হয়েছে। এদিন কলকাতা হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চে এই মামলার শুনানি চলেছে। সোমবার ৫ বিচারপতির বেঞ্চ সাফ জানিয়ে দিয়েছে, 'শুনানি চলবেই। চাইলে কলকাতা হাইকোর্টই নারদ মামলার নিষ্পত্তি করতে পারে।'আগামী বুধবার ফের নারদ মামলার শুনানি হবে কলকাতা হাইকোর্টে।